kolkata bengali news

ডেস্ক: অল্প সময়ের মধ্যে সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছে গিয়েছেন অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়াত। বলিউডে নিজের জায়গা প্রতিষ্ঠার করার জন্য তাঁর কোনও ‘গডফাদার’-এর প্রয়োজন নেই তা তিনি সবসময় বুঝিয়ে দিয়েছেন। ২০০৬ সালে ‘গ্যাংস্টার ছবি দিয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন তিনি। সাফল্যের পাশাপাশি বিস্ফোরক মন্তব্যেও একাধিক তারকাদের জীবন নাজেহালও করেছেন কঙ্গনা। ঋতিক, রণবীর-আলিয়া, দীপিকা সকলেই টের পেয়েছেন অভিনেত্রীর ‘জলওবা’। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী বলেন, কেরিয়ায়ের প্রথম দিকে তাঁকে অনেক কিছু সহ্য করতে হয়েছিল। কঙ্গনা বলেন, পেহেলাজ নিহালানির ছবির জন্য একটি ফোটোশ্যুটের কথা বলা হয়েছিল।

এরপরই কঙ্গনা বিস্ফোরক মন্তব্য করেন যে ফোটোশ্যুটের জন্য তাঁকে এমন একটি পোশাক পরতে বলা হয়েছিল যেটা খুবই আপত্তিকরজনক ছিল। তিনি আরও বলেন, পেহলাজ নিহালানিজি আমাকে তাঁর একটি ছবি ‘আই লভ ইউ’-র জন্য অ্যাপ্রোজ করেছিলেন। সেই ছবির ফোটোশ্যুটের জন্য ডাকা হয়েছিল। যেখানে তাঁরা আমাকে সাটিন রোব নামে একটি পোশাক দিয়েছিলেন। আমাকে সেই জিনিস পরতে বলা হয়েছিল পোজ দেওয়ার জন্য। পোশাক পরে নিজেকে অসহায় লাগছিল। এমনকি ভিতরের কোনও অন্তর্বাস ছিল না। তিনি আরও বলেন, অন্তত আমাকে তাঁরা এমন একটি পোশাক দিত যা পরে আরামদায়ক মনে হয়ত কিন্তু তাঁরা কিছুই করেননি। ওই ছবিতে যুবতীর চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল। শেষমেষ ফোটশ্যুট করি কিন্তু ছবি থেকে নিজেকে দূরে রেখেছিলাম। সেই ছবি আমি করিনি।

এরপর সোজা আমি ‘গ্যাংস্টার’-এর অডিশন যাই এবং ছবিটিতে কাজ পাই। এরপর আমার হাতে আসে দ্বিতীয় ছবি। পরিচালক পুরি জগন্নাথের ছবি ‘পকিরি’। সেই ছবিটি বিশাল হিট করে এবং ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে আমার যাত্রা শুরু হয়। ২০০৬ সাল আমার কাছে খুব স্পেশাল ছিল। ‘গ্যাংস্টার’-এর জন্য আমি বেস্ট ডেবিউ অ্যাক্টরের পুরষ্কার পাই। কঙ্গনা এখন ব্যাস্ত রয়েছেন তাঁর নতুন ছবি ‘মেন্টাল হে ক্যায়া’ ছবির শ্যুটিং নিয়ে। খুব শীঘ্রই তাঁকে দেখা যাবে তামি্লনাডুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার চরিত্রে। এই ছিবির জন্য তিনি ২৪ কোটি টাকা পারিশ্রমিক নিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।দীপিকাকে ছাপিয়ে তিনি এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here