kolkata bengali news

ডেস্ক: লোকসভা নির্বাচনে দেশ থেকে মোদী সরকারকে উৎখাতের লক্ষ্য নিয়ে বিহারের বেগুসরাই থেকে দাঁড়িয়েছেন জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র নেতা কানহাইয়া কুমার। নির্বাচনী যুদ্ধে নেমে ইতিমধ্যেই জোরদার প্রচারও শুরু করে দিয়েছেন তিনি। তবে প্রচারের শুরুতেই জোরদার ধাক্কা খেলেন সিপিআই নেতা কানহাইয়া কুমার। নির্বাচনী প্রচারের শুরুতেই বিক্ষোভ ঘিরে ধরল তাঁকে। বিক্ষোভকারীদের থেকে প্রশ্ন ধেয়ে এল, ‘কী ধরণের আজাদি চান আপনি।’

মঙ্গলবার নিজের সমর্থকদের সঙ্গে নিয়ে নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রে প্রচার শুরু করেন কানহাইয়া। কিন্তু তাঁর প্রচারের গাড়ি কিছুদুর এগনোর পরই তাঁকে ঘিরে ধরে একদল বিক্ষোভকারী। প্রশ্ন তোলা হয় ‘আজাদি’ অর্থে কী চান তিনি? শুধু তাই নয়, বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র নেতা থাকাকালীন ‘ভারত তেরা টুকরে হোঙ্গে’ বলে যে মন্তব্য কানহাইয়া ২০১৬ সালে করেছিলেন তারও জবাব চায় বিক্ষোভকারীরা। দেশদ্রোহী শ্লোগান ওঠে বিক্ষোভকারীদের ভিড় থেকে। তবে এত কিছুর মাঝেও দমেননি কানহাইয়া। পাল্টা তিনি প্রশ্ন ছোঁড়েন আপনারা কি বিজেপি? ওদিক থেকে আওয়াজ আসে, ‘আমরা নোটা। আপনার আজাদি কেমন আজাদি সেটা বলুন।’ এরপর বিক্ষোভের মাঝে আর বেশিক্ষণ থাকেননি ওই বাম প্রার্থী। নিজের গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে যান তিনি।

প্রসঙ্গত, বিহারের বেগুসরাই থেকে এবার বাম প্রার্থী হিসাবে দাড়িয়েছেন কানহাইয়া। তাঁর প্রতিপক্ষ বিজেপির গিরিরাজ সিং। যদিও কানহাইয়ার বিপক্ষে দাঁড়ানো নিয়ে প্রথমে দলীয় শীর্ষ নেতাদের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন তিনি। এমনকি নির্বাচনে দাঁড়াবেন না বলেও জানিয়ে দিয়েছিলেন গিরিরাজ। যদিও পরে মত বদল করেন তিনি। সিপিআইয়ের দাবি, কানহাইয়ার প্রচারে বাধা দিতেই চক্রান্ত শুরু করেছে বিজেপি। এটা তারই একটা উদাহরণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here