ডেস্ক: এই প্রথমবার নেটিজেনদের হাতে লজ্জাজনকভাবে ট্রোল্ড হলেন করণ জোহার। এমনিতেই তাঁর পোশাক কিংবা আচরণের জন্য নেটিজেনেরা বারেবারে টার্গেট করেন তাঁকে। কিন্তু গতকাল সেই ক্ষেত্রে শালিনতার মাত্রাটি চরমে পৌছে গিয়েছে। গতকাল সোশ্যাল মিডিয়াতে তাঁর যৌন পরিচয় জানার জন্য বেশ কিছু করা প্রশ্নের মুখে পরতে হয়। করণের ‘জেন্ডার ম্যালফাঙ্কশন’ নিয়ে নানা প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি। গতকাল আরবাজের চ্যাট শোতে এসে সেই বিষয়ে মুখ খোলেন এই পরিচালক-প্রযোজক।

তিনি জানান, ”আমি ছেলে হিসাবে জন্মেছি। সেই বিষয়ে আমি গর্বিত। কিন্তু আমার মধ্যে একটি মহিলা সত্তা আছে। সেটাই আমাকে বেশি করে পুরুষ হিসাবে গড়ে তোলে।” তাঁকে এহেন ট্রোল করার জন্য দুঃখিত আছেন বলেও জানান করণ। কিন্তু এটা তাঁর অভ্যাস হয়ে গিয়েছে বলেও দাবি তাঁর। করণ জানিয়েছেন, ”আমাকে যখন ট্রোল্ড করা হয়, আমি মনে মনে রাগটাকে পুষে রাখি। কিন্তু মাথা ঠান্ডা করে উত্তর দিয়ে দি। কিন্তু কাউকে আমি ছেড়ে দিই না। কারণ সবকিছুর একটা মাত্রা আছে। প্রত্যেক সকালে উঠে আমি দেখব কেউ আমাকে অপমান করে চলে যাবে আমি তাঁকে ছেড়ে দেব?”

 

সোশ্যাল মিডিয়াতে এই ট্রোল্ড প্রসঙ্গে করণ জানান, ”এই নেটিজেনদের অপমানের কোনও জবাব হয়না। সোশ্যাল মিডিয়ার ঘটনা ‘ফেসলেস’ ও ‘নেমলেশ’ ঘটনা। মানুষের দুঃখ, যন্ত্রনা ও বেদনার দাম নেটিজেনরা দিতে জানে না। তাঁরা শুধু এটাই ভাবে আপনি তো গ্ল্যামার ইন্ডাস্ট্রিতে থাকেন তাই আপনাদের এটা করতে হয়। আমাদের জীবনেও একাকিত্ব, ভয়, শুন্যতা, আবেগ, অবসাদ, এইসব কিছু আছে। কোনও কিছু লিখে দিলেও সেটা সত্যি হয় না সোশ্যাল মিডিয়াতে। নেটিজেনদের এহেন ঘটনায় আমি খুব বিরক্ত।” কাজের ক্ষেত্রে বলতে গেলে করণ জোহার আপাতত ব্যস্ত তাঁর আগামী সিনেমা ‘তখত’-এর শ্যুটিং নিয়ে। মুঘল সাম্রাজ্যের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সিনেমার চিত্রনাট্য সাজিয়েছেন করণ। মুখ চরিত্রে অভিনয় করছেন, ভিকি কৌশল, রণবীর সিং, আলিয়া ভাট, অনিল কাপুর, করিনা কাপুর খান, ভূমি পেডনেকার, জাহ্নবী কাপুরকে। ২০২০ সালে মুক্তি পাবে ‘তখত’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here