ডেস্ক: সমুদ্রের নীচে লাগাতার নিজের শক্তি আরও বাড়িয়ে চলেছে ভারতীয় নৌসেনা। মঙ্গলবার ভারতীয় সেনায় সামিল হল স্কোরপিয়ন শ্রেণির তৃতীয় সাবমেরিন ‘করঞ্জ’। নৌসেনা প্রধান সুনীল লাম্বার উপস্থিতিতে নৌসেনার হাতে তুলে দেওয়া হয় এই অত্যাধুনিক সাবমেরিনটি। মুম্বইয়ের মাঝগাঁও বন্দরে এই একটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে নৌসেনার হাতে তুলে দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মেক ইন ইন্ডিয়া প্রকল্পের আওতায় তৈরি হয়েছে এই ডুবোজাহাজটি।

ইতিপূর্বে ভারতীয় নৌসেনায় স্কোরপিয়ন ক্লাসের আরও দুটি সাবমেরিন সামিল হয়েছিল। আইএনএস কালভারি ও খান্ডেরি, করঞ্জকে সামিল করে ভারত সমুদ্রের নীচে সামরিক শক্তি আরও কিছুটা মজবুত করে নিল। ভারত মহাসাগরে চিন ও পাকিস্তানের বাড়তে থাকা উপদ্রবকে নিয়ন্ত্রণে আনতে এই ডুবোজাহাজগুলি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা গ্রহণ করবে। একই সঙ্গে চিনের ও পাকিস্তানের জন্য দুশ্চিতা বাড়িয়ে তোলার জন্য এই ডুবোজাহাজটিতে এমন একটি প্রযুক্তি যোগ করা হয়েছে যার ফলে শত্রুপক্ষের রেডারেও ধরা দেবে না এই সাবমেরিন।

জেনে নিন এই ডুবোজাহাজটির কয়েকটি বিশেষত্ব

  • ডুবোজাহাজটিকে শত্রুপক্ষের রেডারে ধরা অসম্ভব।
  • জলের নীচে এবং মাটির উপরে, উভয় স্থানেই হামলা চালাতে সক্ষম করঞ্জ।
  • কম জ্বালানি ছাড়াও বাকি ডুবোজাহাজগুলির তুলনায় অনেক বেশি সময় ধরে জলের নীচে থাকতে সক্ষম করঞ্জ।

২০২৯ সালের মধ্যে স্কোরপিয়ন ক্লাসের ২৯টি ডুবোজাহাজ তৈরি করার পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নেমেছে প্রতিরক্ষা দফতর। মসৃণ কাজের গতি দেখে নৌসেনাও আশাবাদী যে সময়ের মধ্যেই সমস্ত ডুবোজাহাজগুলি পেয়ে যাবে তারা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here