নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আট মাস আগে কড়েয়া এলাকায় এক বৃদ্ধ খুনের ঘটনায় আরও এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ। আনার জমাদার নামে ওই অভিযুক্তকে রবিবার গ্রেফতার করে কড়েয়া থানার পুলিশ। ধৃত যুবক পারুলিয়া কোস্টাল থানা এলাকার মুরাগাছার বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে। শনিবারই এই ঘটনায় প্রথম অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ।

প্রায় আট মাস আগে ২০১৯ সালের ৫ই জুন, কড়েয়া থানা এলাকার ব্রড স্ট্রিটে খুন হন এক বৃদ্ধ। অসংখ্য বার তাঁকে ফোন করে না পেয়ে পরদিন বাড়িতে এসে ওই বৃদ্ধের রক্তাক্ত মৃতদেহ দেখতে পান তাঁর মেয়ে। এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে মৃতদেহ উদ্ধার করে কড়েয়া থানার পুলিশ। পুলিশ সূত্রে খবর, তাঁর ঘরের একটি আলমারি খোলা অবস্থায় ছিল। লুঠ হয়েছিল বেশ কিছু টাকা ও একটি মোবাইল। তখন ৩০২ ধারায় খুনের মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। এরপর প্রায় আট মাস পর সেই খোয়া যাওয়া মোবাইলের সূত্র ধরেই গতকাল শনিবার এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই বৃদ্ধের খোয়া যাওয়া মোবাইলটি এক বিক্রেতার কাছ থেকে কিনে ব্যাবহার করছিলেন এক যুবক। ওই মোবাইল বিক্রেতাকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ধীরে ধীরে এক সময় মুর্শিদ শেখ নামে বছর আঠাসের এক যুবকের হদিস পান তদন্তকারী আধিকারিকরা। লাগাতার জেরার মুখে ভেঙে পরে সে পুলিশকে জানায়, ৫ই জুন স্রেফ চুরি করতেই ওই বৃদ্ধের বাড়িতে ঢুকেছিল মুর্শিদ। চুরির কাজে বাধা পেয়েই গৃহকর্তাকে খুব করে সে।

ধৃত মুর্শিদকে শনিবার পুলিশ হেফাজতে নিয়ে ফের শুরু হয় জেরা। পুলিশ সূত্রে খবর, দফায় দফায় জেরার মুখে এই ঘটনায় জড়িত আরও এক অভিযুক্তর নাম জানিয়ে দেয় মুর্শিদ। জানা যায় তাঁর বাড়ি দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার পারুলিয়া কোস্টাল থানা এলাকার মুরাগাছায়। এরপরই অভিযুক্তর সন্ধানে মুরাগাছা রওনা দেয় কড়েয়া থানার পুলিশ। রবিবার সকালে নিজের বাড়ি থেকেই আনার জমাদার নামে বছর সাতাশের ওই যুবককে গ্রেফতার করে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের ধৃত নিজের অপরাধ কবুল করেছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here