পাকিস্তানকে একহাত নিয়ে মোদীর দাবি, দেশের সুরক্ষা প্রসঙ্গে কোন আপোস নয়

0
100
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: কার্গিল বিজয় দিবস নিয়ে বক্তব্য পেশ করতে গিয়ে পাকিস্তানকে একহাত দিলেন প্রধানমন্ত্রী। বিগত কার্গিল দিবসে টুইট করে জওয়ানদের পাশে থাকার কথা বলেন তিনি। সেই প্রসঙ্গ টেনে এনে এবার দিল্লির ইন্দিরাগান্ধী স্টেডিয়ামে সেনাবাহিনী তথা দেশবাসীর উদ্দেশ্যে কথা বললেন তিনি। এদিন মোদী বলেন, দেশের সুরক্ষার প্রসঙ্গে কোন আপোস নয়। দিল্লির ইন্দিরাগান্ধী স্টেডিয়ামে শনিবার সেনাবাহিনীর বীর জয়ের উপলক্ষে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে মুল অতিথি ছিলেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। মোদী ছাড়াও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ। সেনাবাহিনীর তরফে আয়োজন করা হয় বীরগাথা তাতে অভিনয় করেন সেনা সদস্যরাই। অনুষ্ঠানে প্রদর্শিত হয় ভারতীয় সেনার উপর নির্মিত একটি ছবি। একসঙ্গে বসে সেই ছবিও দেখেন প্রধানমন্ত্রী সহ আমন্ত্রিত অথিতিরা।

অনুষ্ঠানের শুরুতে আবেগতাড়িত গলায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, কার্গিল আমার কাছে তীর্থক্ষেত্রের সমান। কার্গিল জয়ের প্রসঙ্গে বলেন, এই আমাদের দেশের সাহসী যুবসম্প্রদায়ের। দেশের সুরক্ষা প্রসঙ্গ সবার আগে। ২০ বছর আগে কার্গিল নাছোড়বান্দা পাকিস্তানকে উচিত জবাব দিয়েছিল ভারতীয় সেনা। সৌভাগ্যবশত ১৯৯৯ সালে দলীয় কাজে আমার সেখানে থাকার সুযোগ হয়েছিল। সেনাবাহিনীর পাশে থাকতে পেরে নিজেকেই বেশ গর্বিত মনে হচ্ছিল। কাজের সূত্রে হিমাচল কাশ্মীরে থাকায় সেনা জওয়ানদের সঙ্গে দেখা করার ও কথা বলার সুযোগ হয়েছিল যা অবিস্মরণীয় এক স্মৃতি। সেনাবাহিনীর এই সাফল্যের কথা বলতে গিয়ে তিনি জানান, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর আমলেই পাকিস্তানের ছলনার কড়া জবাব দিতে পেরেছিল ভারত। বুঝিয়ে দিয়েছিল কাশ্মীর নিয়ে ছলনা করলে চুপ করে বসে থাকবে না ভারত। বক্তৃতার অন্তিমে এসে তিনি এও বলেন তাঁর সরকারের আমলেই দেশের সেনাদের সম্মান জানাতে ‘ওয়ান ব্যাঙ্ক ওয়ান পেনশন’ চালু করা হয়েছে। মোদীর কথার মাঝে উঠে আসে বিশ্বজুড়ে সন্ত্রাসবাদের প্রকোপ ক্রমশ বাড়ছে। নাম না করে বলেন, আর আমাদের প্রতিবেশী দেশ সেই কাজে পূর্ণ সহযোগিতা পেশ করে চলেছে। দেশের প্রতিরক্ষা বিভাগকে নতুন সাজে সাজিয়ে তুলতে বাড়ানো হচ্ছে অস্ত্রসম্ভার। নতুন যুদ্ধ বিমান আনা হচ্ছে বায়ুসেনার জন্য। নৌবাহিনীর রণতরীকে আরও বেশি উন্নত করে তোলা হচ্ছে।

প্রসঙ্গত গতকাল ভারতীয় বায়ুসেনার হাতে এসেছে চারটি বিধ্বংসী অ্যাপাচে হেলিকপ্টার। কথা চলছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে তাদের ব্যবহৃত অস্ত্রবাহী ড্রোন কেনার বিষয়ে। সিন্ধান্ত নেওয়া হয়েছে নৌসেনার হাতে নতুন ডুবো জাহাজ তুলে দেওয়ার। যদিও চলতি অর্থবর্ষে প্রতিরক্ষা খাতে বেশ কিছুটা বরাদ্দ কমানো হয়েছে বিগত বছরের তুলনায়। অন্যদিকে কার্গিল বিজয় দিবসের বিশ বর্ষে দাঁড়িয়ে পাকিস্তানকে কড়াবার্তা দেন সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত। তিনি বলেন, পাকিস্তান যদি ফের নাশকতা চালানোর চেষ্টা করে তবে তার নাক ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি রাজনাথ সিং ও জানিয়েছেন, পাকিস্তান ছায়াযুদ্ধ চালাচ্ছে কাশ্মীরে। সে বিষয়ে সেনাবাহিনীকে মুক্ত হস্ত করে দিয়ে কড়া জবাব দেওয়ার হুঁশিয়ারি ও দেন তিনি। এদিন প্রধানমন্ত্রী সাফ জানিয়েদেন যেকোন পরিস্থিতিতেই সেনাবাহিনীর পাশে থাকবেন তিনি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here