ডেস্ক: আসন্ন কর্ণাটক নির্বাচন জিততে প্রাক্তন ভারতীয় অধিনায়কদের তুরুপের তাস করবে বলে ভেবেছিল বিজেপি। কিন্তু রাহুল দ্রাবিড় ও অনিল কুম্বলের কাছ থেকে খালি হাতেই ফিরতে হল আমিত শাহ ও নরেন্দ্র মোদী অ্যান্ড কোং-কে।

কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনের দিনক্ষণ ঘোষণা হওয়ার পর থেকে প্রচারে নেমে শাসক দল কংগ্রেস ও বিরোধী পক্ষ বিজেপি। এরমধ্যে পরপর কয়েকটি আত্মঘাতী গোল করে বিজেপিকে দায়িত্ব নিয়ে পিছিয়ে দিয়েছেন অমিত শাহ। ফলে দক্ষিণের অন্যতম দুই চর্চিত ক্রিকেটের মুখ রাহুল দ্রাবিড় ও অনিল কুম্বলেকে দলে টেনেই আলো পেতে চাইছিল পদ্ম শিবির। কিন্তু বিজেপির এই প্রস্তাবে সটান ‘না’ বলে দিয়েছেন ভারতীয় দলের এই দুই প্রাক্তন তারকা।

কর্ণাটকের যুব সমাজকে কাছে টানতেই এই দুই প্রাক্তন অধিনায়ককে ভোটযুদ্ধে সামিল করতে চেয়েছিল বিজেপি। এই দুই তারকা বিজেপির প্রস্তাবে না বললেন হাল এখনই ছেড়ে দিতে রাজি নয় কর্ণাটক জিততে চেয়ে মরিয়া হয়ে ওঠা পদ্ম শিবির। রাহুল ও কুম্বলের মধ্যে যে কোনও একজনকে রাজ্য অথবা লোকসভা প্রার্থী করার বিষয়ে আশাবাদী তারা।

প্রসঙ্গত, আগামী ১২ মে কর্ণাটকে অনুষ্ঠিত হতে চলেছে বিধানসভা নির্বাচন। ২২৪টি বিধানসভা আসনের জন্য হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে মূলত কংগ্রেস-বিজেপির মধ্যে। এই মুহূর্তে সেখানের মুখ্যমন্ত্রী সিদ্দারামাইয়া। খাতায় কলমে শাসকদল কংগ্রেস এগিয়ে থাকলেও বিজেপি তাদের যথেষ্ট প্রতিযোগিতার মধ্যে ফেলবে বলে মনে করা হচ্ছে। অন্যদিকে, ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনেও আর বেশি সময় নেই। তাই কর্ণাটক নির্বাচনকে সেমিফাইলের আখ্যা না দিলেও, ভারতীয় রাজনীতির ভবিষ্যৎ মানচিত্র গঠনে এই নির্বাচন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে বলে মনে করা হচ্ছে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here