‘কাশ্মীর ছাড়া ভারত নেই, ভারত ছাড়াও কাশ্মীর নেই’, মার্কিন কংগ্রেসে আগুন ঝরালেন সুনন্দা

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ হওয়ার পর থেকেই গোটা বিশ্বের সামনে একটাই বড় প্রশ্ন ঘুরছে, উপত্যকার মানুষের মানবাধিকার কি আদৌ রক্ষা করছে ভারত সরকার? এই নিয়ে মার্কিন কংগ্রেসে এক শুনানি চলাকালীন সমালোচকদের রীতিমতো ধুয়ে দিলেন কাশ্মীরি কলামিস্ট সুনন্দা বশিষ্ঠ।

আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেসে এই নিয়ে আলোচনা শুরু হলে সুনন্দা বলেন, পঞ্জাব ও উত্তর পূর্বের এলাকাগুলিতে আগেই সন্ত্রাসবাদ দমন করা সম্ভব হয়েছে। এবার কাশ্মীরে সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়ার সময় চলে এসেছে নয়াদিল্লির। পাক প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত জঙ্গিরা যাতে আইএস-এর কায়দায় উপত্যকায় সন্ত্রাসের খেলায় না মেতে উঠতে পারে তা ভারত সরকার নিশ্চিত করবে বলে জানান সুনন্দা। পাকিস্তানে প্রশিক্ষিত জঙ্গিরা কাশ্মীরে আইসিস কায়দায় হামলা চালানোর এই ছকের বিষয় পশ্চিমের দেশগুলো ওয়াকিবহাল থাকলেও টুঁ শব্দ কখনও করেনি। এই নিয়ে সরব হন সুনন্দা।

এদিন যে বিষয়টির ওপর বারবার জোর দিয়ে সুনন্দা বুঝিয়ে দেন তা হল, কাশ্মীর থেকে সন্ত্রাসবাদ নির্মূল করাই প্রধান লক্ষ্য ভারত সরকারের। সেই উদ্দেশ্য সাধনে সরকার যে কড়া পদক্ষেপ নিতেও পিছুপা হবে না সেটাও জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘ভারত কাশ্মীর দখল করেনি। কাশ্মীর সব সময়ই ভারতের অবিচ্ছিন্ন অংশ ছিল। ভারতের অস্তিত্ব মাত্র ৭০ বছরের নয়। এই দেশের পেছনে ৫০০০ বছরের পুরনো সভ্যতার ইতিহাস রয়েছে। কাশ্মীর ছাড়া ভারত নেই, ভারত ছাড়াও কাশ্মীর নেই।’

কাশ্মীরের ঘাঁটিকে সন্ত্রাসমুক্ত করার জন্য আন্তর্জাতিক মহলকেও ভারতের পাশে থাকার আবেদন করেন সুনন্দা। মানবাধিকারের প্রশ্নে তাঁর পাল্টা জবাব ছিল, ‘আমার অধিকার কেড়ে নেওয়ার সময় মানবাধিকারের সমর্থকরা কোথায় ছিলেন?’ বস্তুত পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা কীভাবে উপত্যকায় এত বছর সন্ত্রাস চালিয়ে এসেছে সেই উদাহরণ তুলে ধরেই মানবাধিকারের প্রশ্ন ঢাকেন সুনন্দা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here