পেলেটে আহতদের নিয়ে নীরব কাশ্মীর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

0
54
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: জম্মু-কাশ্মীরে নয়া ফরমান জারি করেছে প্রশাসন৷ এবার থেকে উপত্যকার কোনও সংবাদ মাধ্যমকে পেলেট গানে আহতদের সম্পর্কে কোনও তথ্য দেওয়া হবে না৷ পেলেট বা ছররা গুলি উপত্যকার নিরাপত্তা কর্মীরা ব্যবহার করেন৷ জম্মু কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা লোপ ও উপত্যকা থেকে লেহ-লাদাখকে আলাদা করার পরে প্রায় দু’সপ্তাহ উপত্যকা জুড়ে কার্ফু জারি ছিল৷ বিদেশি গণমাধ্যমের দাবি ছিল এর মধ্যেও কাশ্মীরে হিংসা চলেছে৷ অন্যদিকে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের সাফ দাবি কোনওরকম গণ্ডগোল হয়নি জম্মু-কাশ্মীরে৷ এখনও উপত্যকায় সংবাদ মাধ্যম নিয়ন্ত্রিত৷ এই ক’দিনে স্থানীয় মানুষদের নিয়ে নান মুনির নানা মত৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এক আধিকারিকের কথায়, মিডিয়া মারফৎ গুজব ছড়ানো আটকাতেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷

শ্রীনগরের সরকারি হাসপাতাল শ্রী মহারাজ হরি সিং গভর্মেন্ট মেডিক্যাল হসপিটাল(এসএমএইচএস) এর ৮ নম্বর ওয়ার্ডে পেলেটে আহতরা ভর্তি থাকেন৷ তেব ঠিক কতজন ভর্তি আছেন তা নিয়ে রীতিমতো ধোঁয়াশায় সংবাদ মাধ্যম৷ এই ওয়ার্ডে সাংবাদিকদের প্রবেশ কঠোরভাবে নিষিদ্ধ৷ এমনকী রোগীর আত্মীয়দের সঙ্গেও হাসপাতাল চত্বরে কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না সংবাদ মাধ্যমের প্রতিনিধিদের৷ কোনও চিকিৎসকেরা সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন না৷ এই হাসপাতালের সুপার চিকিৎসক পারভেজ শাহ সাংবাদিকদের তাঁর সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছেন না৷ যে কোনও তথ্য ডিভিশনাল কমিশনার থেকে জানা যাবে৷ সাফ বক্তব্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের৷

শ্রীনগরে সরকারি হাসপাতালে এই মুহূর্তে পাঁচ থেকে সাত জন পেলেটে আহত ভর্তি আছেন বলে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে৷ সরকারি মুখপাত্র রোহিত কানসল স্বীকার করেছেন পেলেটে আহতরা হাসাপাতালে ভর্তি হয়েছেন৷ তবে আহতদের সংখ্যা তিনি জানাননি৷ হরি সিং হাসপাতালে কর্তব্যরত চিকিৎসকরাও এই বিষয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন৷ তবে এরই মধ্যে ৭৫ বছরের এক বৃদ্ধ জানান, ‘রাস্তায় একদল বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল৷ আমি রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলাম পেলেট আমার চোখে লাগে৷ তারপর আমি হাসপাতালের দোরে দোরে গিয়েছি৷ কেউ ভর্তি নিতে চাইছিল না৷ অতিকষ্টে সরকারি হালপাতালে ভর্তি হয়েছি’৷ তাঁর মতো অনেকেই এমন অভিযোগ করছেন৷ এই নিয়ে নীরব প্রশাসন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here