kolkata news

মহানগর ডেস্ক:   দিল্লিতে ভয়াবহভাবে আকারে অক্সিজেনের আকাল দেখা দিয়েছে। পরিস্থিতি এমন, কেন্দ্র ও দিল্লি সরকারের সংঘাত চরম পর্যায়ে পৌঁচেছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে আসরে নেমেছে সুপ্রিম কোর্ট। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যবাসীকে আশ্বাস দিয়ে কেজরিওয়াল জানান, কেন্দ্র দৈনিক ৭০০ টন অক্সিজেন দিলে, কোনো করোনা রোগী আর যাই হোক, অক্সিজেনের অভাবে মরতে হবে না।

এক বিবৃতিতে কেজরিওয়াল বলেন, আরও ৭০০ টন অক্সিজেন পেলে দিল্লি সরকার করোনা রোগীদের জন্য ৯,০০০- ৯,৫০০ টি বেডের ব্যবস্থা করা সম্ভব হবে। আমি আশ্বস্ত করতে পারি, দিল্লিতে অক্সিজেনের অভাবে কোনও করোনা রোগীকে মরতে হবে না। কেন্দ্র সরকার দিল্লিকে ৭০০ টন অক্সিজেন দিতে প্রথমে অস্বীকার করে। তবে প্রথমে দিল্লি হাইকোর্ট ও পরে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে বাধ্য হয়েছে কেন্দ্র দিল্লিকে ৭০০ টন অক্সিজেন দিতে। তবে কেন্দ্রের থেকে পাঠানো ৭০০ টন অক্সিজেন এখনও দিল্লিতে এসে পৌঁছয়নি।

দিল্লির আম আদমির সরকার বলেন, রাজ্যে অক্সিজেনের চাহিদা ব্যাপক। এই পরিস্থিতি প্রয়োজনের অর্ধেক অক্সিজেন এখন কেন্দ্র দিল্লিকে দিয়েছে। অন্য দিকে, বিজেপি শাসিত হরিয়ানা ও উত্তর প্রদেশে  প্রয়োজন অনুযায়ী অক্সিজেন পাঠাচ্ছে। কেজরিওয়াল বলেন, অক্সিজেনের ঘাটতির অভাবের জেরে দিল্লির অনেক হাসপাতাল বেড কমিয়ে দিয়েছে। ৭০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন পাওয়ার পর হাসপাতালগুলো আবার বেড বাড়িয়ে দেবে বলে কেজরিওয়াল আশা প্রকাশ করেছে।

দিল্লির পাশাপাশি কেন্দ্রের কাছ থেকে অক্সিজেন চেয়েছে কর্ণাটক। কর্ণাটক হাইকোর্ট কেন্দ্রকে প্রতিদিন ১২০০ টন লিকিউড অক্সিজেন পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে। দিল্লির পাশাপাশি উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটকে অক্সিজেনের অভাবে করোনা রোগীর মৃত্যু হয়েছে।  

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here