news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: লড়াইটা ভীষণ কঠিন। যেনতেন প্রকারেন জিততে হবেই। ক্রমশ বাড়তে থাকা করোনার বিরুদ্ধে এই পণ করেছে গোটা দেশ। অদৃশ্য শত্রু বিরুদ্ধে লড়াইতে এবার রাজ্য সরকারি কর্মীদের পাশে চাইলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ণ। সরকারি কর্মীদের কাছে তার অনুরোধ কঠিন এই সময়ে আপনার পাশে দাঁড়ান। ত্রাণ তহবিলে এক মাসের বেতন দান করুন আপনারা।

ক্রমাগতভাবে বাড়তে থাকা করোনাকে সামাল দিতে প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের পাশাপাশি প্রতিটি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী খুলেছেন ত্রাণ তহবিল। যাতে সামর্থ্য অনুযায়ী দান করার অনুরোধ করা হয়েছে রাজ্যবাসীকে। সেই প্রেক্ষিতেই বুধবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে বসেছিলেন কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রিসভার একাধিক সদস্যের পাশাপাশি উচ্চপদস্থ সরকারি আমলারাও। দীর্ঘ বৈঠকের পর রাজ্যের সমস্ত সরকারি কর্মীদের কাছে তিনি অনুরোধ করেন তাদের এক মাসের বেতন এই তহবিলে দান করার জন্য। যাতে বাড়তে থাকা করোনার বিরুদ্ধে লড়াইটা করতে পারে সরকার। সরকারি কর্মীরা যদি তাদের এক মাসের বেতন তহবিলে দান করেন সেক্ষেত্রে ২৫০০ কোটি টাকার অংক ছুঁয়ে ফেলবে এই তহবিল উপকৃত হবেন রাজ্যবাসীরা। তবে সরকারের এই আবেদনকে অশনিসংকেত হিসেবে দেখছেন কেরলের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলি। রাজ্য বিজেপির সভাপতি কে সুরেন্দ্রনাথের দাবি, এই পদ্ধতিতে এপ্রিল মাসের বেতন না দেওয়ার পরিকল্পনা শুরু করেছে রাজ্য সরকার। যদি তা হয় সে ক্ষেত্রে বিপদের মুখে পড়বে সরকারি কর্মীদের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি।

তবে রাজ্য সরকারের এহেন আবেদন এই প্রথমবার নয় ২০১৮ সালে যখন ভয়াবহ বন্যা কেরলকে তছনছ করে দিয়েছিল, তখনো সরকারি কর্মীদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই আবেদনে সাড়া দিয়েছিলেন ৫.৯ লক্ষ সরকারি কর্মচারী। প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা জমা পড়েছিল রিলিফ ফান্ডে। করোনা সামলাতেও এবার একই পথে হাঁটল কেরল সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here