news bengali

মহানগর ওয়েবডেস্ক: মহারাষ্ট্র আগেই প্রতিবাদ জানিয়েছিল, এবার শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে সুর চড়াল কেরল। সরকারের তরফে জানানো হল, রাজ্যকে না জানিয়ে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন পাঠানোয় করোনাভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কা আরো বেড়ে যাচ্ছে। রেল মন্ত্রকের সিদ্ধান্তের জন্যই এই অবস্থা তৈরি হয়েছে।

কেরল সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, নির্দিষ্ট রাজ্য সরকারগুলিকে আগে থেকে না জানিয়ে অন্যান্য রাজ্য থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেলমন্ত্রক। এইভাবে প্রাথমিক কোনও তথ্য ছাড়া রাজ্যে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন ঢুকলে ভাইরাস সংক্রমণ আরো বেড়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন এবং অর্থমন্ত্রী থমাস আইজ্যাক কেন্দ্রীয় সরকারের বিরুদ্ধে তোপ দেগে দাবি করেছেন, রেলমন্ত্রক করোনাভাইরাসের ‘সুপার স্প্রেডার’ হিসেবে কাজ করছে! এই প্রেক্ষিতে টুইট করেছেন রাজ্যের অর্থমন্ত্রী।

কেরল সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রাজ্যের মানুষ রাজ্যে ফিরবে এই নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু পরিযায়ী শ্রমিকদের ফেরানোর স্পেশাল ট্রেন সম্পর্কে আগে থেকে তথ্য না দেওয়ায় সমস্যা বাড়ছে। ভাইরাস সংক্রমণের আশঙ্কাও বাড়ছে। উল্লেখ করা হয়েছে কিছুদিন আগে মহারাষ্ট্র থেকে শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন কেরলে ঢুকেছে। কিন্তু সেই ট্রেন সম্পর্কে আগে থেকে রাজ্য সরকারকে কোনো তথ্য দেওয়া হয়নি কেন্দ্রের পক্ষ থেকে। রেলের এই সিদ্ধান্তের ফলে দিশেহারা অবস্থায় পড়তে হচ্ছে কেরল সরকারকে। কারণ ভারতের মধ্যে ভাইরাস পরিস্থিতি মোকাবিলায় সবচেয়ে সফল এখনো পর্যন্ত কেরল। সেই প্রেক্ষিতে এই সিদ্ধান্ত রাজ্যের পরিস্থিতি আরো খারাপ করে দিতে পারে বলে আশঙ্কা। এই মুহূর্তে রাজ্যে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮৯৬।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here