national news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ভারতের মাটিতে ক্রমশ ভয়াবহ হয়ে উঠছে করোনাভাইরাস। এক শরীর থেকে অন্য শরীর, আক্রান্তের সংস্পর্শে এসে মুহূর্তের অসতর্কতা সুস্থ শরীরেও ছড়িয়ে পড়ছে মারণ এই ভাইরাস। পরিস্থিতির ভয়াবহতা বুঝে এবার চিনা পন্থা অবলম্বন করল কেরল। আক্রান্তের সঙ্গে কোনও রকম সংস্পর্শ এড়াতে সরকারের তরফে কেরলে মাঠে নামাল হল রোবট। ডাক্তার ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে যাতে এই ভাইরাসের আক্রমণ না ঘটে তার জন্য রোগী ও স্বাস্থ্যকর্মীদের হাতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার তুলে দেওয়া হচ্ছে রোবটের মাধ্যমে। করোনার আঁতুর ঘর উহানে সংক্রমণ রুখতে এই পন্থাই অবলম্বন করেছিল চিন সরকার।

হাসপাতালে রোবটকে কাজে লাগানোর অভিনব এই পন্থা ব্যবহার করছে কেরলের সরকারি সংস্থা কেরল স্টার্টআপ মিশন। বর্তমানে ২ রোবটকে হাসপাতালের কাজে ব্যবহার করছে তাঁরা। রোগীদের হাতে মাস্ক ও স্যানিটাইজার তুলে দেওয়ার পাশাপাশি খাবার ও প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র তুলে দেওয়ার কাজটিও করা হচ্ছে রোবটের দ্বারা। প্রতি ওয়ার্ডে গিয়ে রোগীদের সাহায্যে আসছে বিজ্ঞানের এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। রোবটের দ্বারা মাস্ক ও স্যানিটাইজার বিলির অভিনব এহেন উদ্যোগের ভিডিও টুইটারে পোস্ট করেছেন কংগ্রেস সাংসদ শশী থারুর। যে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, হাসপাতাল কর্মী ও রোগীদের কাছে গিয়ে তাদের হাতে মাস্ক তুলে দিচ্ছে রোবট। আগামী দিনে এই রোবটকে আরও খানিক শিখিয়ে পড়িয়ে, রোগীদের কীভাবে আওসোলেশনে নিয়ে যেতে হবে, কীভাবে চিকিৎসা করাতে সবে সবটাই করবে এই রোবট।

উল্লেখ্য, উহানে করোনার বাড়বাড়ন্তের পর ঠিক একই রাস্তায় হেটেছিল চিন সরকার। হাসপাতাল কর্মী ও চিকিৎসকদের সংক্রমণ আটকাতে সেখানে হাসপাতালে রোগীদের চিকিৎসা থেকে ওষুধ খাওয়ানো সবটাই রোবটের মাধ্যমে সারত সরকার। কাজে এসেছিল সেই পন্থা। বর্তমানে সংক্রমণের হার কমিয়ে করোনা থেকে সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার অনেক বেড়েছে চিনে। প্রযুক্তিকে হাতিয়ার করেই এবার করোনা সামাল দিতে মাঠে নামল কেরল।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here