milk packet

মহানগর ডেস্ক: পেট্রোপণ্যের দাম ক্রমেই বাড়ছে। দেশের অনেক রাজ্যেই পেট্রোলের গণ্ডি ১০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। এই দাম কমার কোনও লক্ষণ নেই। সারা দেশে পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির বিরোধিতা করে একাধিক আন্দোলন হয়েছে। এখনও বিক্ষোভ চলছে। নয়া পদ্ধতিতে বিক্ষোভের সিদ্ধান্ত নিল হরিয়ানার খাপ পঞ্চায়েত। লিটার প্রতি দুধের দাম ১০০টাকা বিক্রির সিদ্ধান্ত নিল খাপ পঞ্চায়েত। পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির এই অভিনব প্রতিবাদে যে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস উঠবে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

শনিবার হরিয়ানায় খাপ পঞ্চায়েতের বৈঠক ছিল। সেখানেই লিটার প্রতি দুধ ১০০টাকায় বিক্রির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সরকারি কো-অপরাটিভ সোশ্যাইটির কাছে দুধ ১০০টাকায় বিক্রি করবেন দুধ বিক্রেতারা বলে হরিয়ানা সরকারের তরফে জানানো হয়েছে। হরিয়ানার খাপ পঞ্চায়েতের তরফে একটি বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে জানানো হয়েছে, ১০০টাকা লিটার প্রতি দুধ বিক্রি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আমরা দুধ বিক্রেতাদের কাছে অনুরোধ করছি একই দামে তাঁরা যেন সরকারি কো-অপরাটিভ সোশ্যাইটির কাছে বিক্রি করেন।

দেশে হু হু করে পেট্রোপণ্যের দাম বাড়ছে। তার সঙ্গে বাড়ছে এলপিজি গ্যাসের দাম। এই পরিস্থিতিতে মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাসের জোগাড়। বিরোধীরা সরব হয়েছেন। ভারতের বিভিন্ন জায়গায় তাঁরা বিক্ষোভ, আন্দোলন করছেন। সাধারণ মানুষের অসন্তোষ ক্রমেই বাড়ছে। এই পরিস্থিতিতে কয়েকদিন আগে পেট্রোলিয়াম মন্ত্রী ধর্মেন্দ্র প্রধান সকলকে আশ্বস্ত করে বলেন, শীতকাল চলে যাওয়ার পর পেট্রোপণ্যের দাম কিছুটা কমবে। পেট্রোলিয়াম মন্ত্রীর এই মন্তব্যের কটাক্ষ করেন বিরোধীরা। তাঁরা বলেন, পেট্রোপণ্য কি মরশুমি ফল, শীতকাল চলে গেলে দাম কমে যাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here