tala bridge reconstructions

Highlights

  • টালা ব্রিজ ভাঙার কাজ শুরু হচ্ছে শীঘ্রই
  • নতুন সেতু তৈরিরও তৎপরতা কেএমডিএ-র
  • দরপত্র পেশ করল কেএমডিএ

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: পুরনো টালা সেতু ভাঙার সঙ্গে সঙ্গে নতুন সেতু তৈরির প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছে রাজ্য সরকার। নতুন সেতু তৈরীর জন্য আজ কেএমডিএ- র তরফে দরপত্র পেশ করার জন্য আহ্বান করা হয়েছে। দরপত্র অনুযায়ী, নতুন সেতু তৈরির জন্য ২৬৪ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। দেড় বছরের মধ্যে সেতুর কাজ শেষ করতে হবে। যে সংস্থা সেতু তৈরির দয়িত্ব পাবে তাদের ১০ বছর সেতু রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নিতে হবে। নতুন সেতু হবে চারটি লেনের। জানিয়েছে পূর্ত দপ্তর।

নবান্ন সূত্রের খবর নতুন টালা সেতুর নকশা ইতিমধ্যেই অর্থমন্ত্রকের ছাড়পত্র পেয়ে গিয়েছে। সেতুর নিচে রেললাইন থাকায় কতকগুলি বিষয় মাথায় রেখে বানানো হয়েছে নকশা। জানা গিয়েছে দ্বিতীয় হুগলি সেতুর মতো কেবল স্টেড ব্রিজ তৈরি হবে। এর ফলে নতুন সেতু অনেকটা প্রশস্ত হবে। ব্রিজের নিচে রেল লাইনের মাঝে কোনও পিলার বসাতে হবে না। দু’দিকে শুধু পিলার থাকবে। মাঝের অংশটি লোহার বিম দিয়ে সেতুর ওজন ধরে রাখবে। ব্রিজের নিচে যে পানীয় জল ও বিদ্যুতের লাইন রয়েছে, সেগুলিরও ক্ষতি হবে না বলে পূর্ত দপ্তরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন।

নবান্ন সূত্রে খবর, ১৮ জানুয়ারি থেকে টালা ব্রিজ ভাঙার কাজ শুরু হবে। ৮০০ মিটার লম্বা এই সেতু ভাঙার খরচ আনুমানিক ৩০ কোটি টাকার কাছাকাছি। সেতু ভাঙার জন্য ঠিকাদার সংস্থাগুলিকে আহ্বান জানাতে টেন্ডার ডেকেছিল পূর্ত দপ্তর। সেই কাজও প্রায় শেষ। টালা ব্রিজ সংক্রান্ত কাজকর্ম তদারকির জন্য একটি বিশেষ কমিটি ইতিমধ্যেই গঠন করা হয়েছে। কমিটিতে থাকবেন রাজ্য সরকারি আধিকারিক ও রেলের আধিকারিকরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here