metro and resturant

মহানগর ওয়েবডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আহ্বানে একের পর এক নানা পরিবহন সংস্থাও সায় দিয়েছে। দিল্লি থেকে শুরু করে দেশের নানা বড় শহর তাদের মেট্রো পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এমনকী বেশ কয়েকটি বিমান পরিবহন সংস্থাও জানিয়েছে তারা ওইদিন কোনও বিমান চালাবে না। কোনও ভাবে যাতে মারণ ভাইরাস করোনার সংক্রমণ রুখে দেওয়া যায় সেই জন্যই এই প্রতিকার। তবে বাকি শহরগুলির মতো পুরোপুরি শাটডাউনের পথে হাঁটছে না কলকাতা মেট্রো। মেট্রোরেলের তরফে জানানো হয়েছে, অন্যান্য ছুটির দিনের তুলনায় ওইদিন খুব কম সংখ্যক মেট্রো চালানো হবে।

আপ-ডাউন মিলিয়ে ১২৪ ট্রেন চলে। রবিবার সেটি চলবে ৫৪টি। ৩০টি মিনিট অন্তর। ইষ্ট-ওয়েস্ট মেট্রো অন্যদিন আপ-ডাউন মিলিয়ে চলে ৫০টি। আগামীকাল সেটি চলবে ৩৪টি। এটিও ৩০ মিনিট অন্তর চালানো হবে বলে জানানো হয়েছে। প্রথম এবং শেষ মেট্রোর ছাড়ার সময়ের কোনও পরিববর্তন হয়নি বলে জানা গিয়েছে। অন্যান্য রবিবারের মতোই নির্দিষ্ট সময়ে সেটি ছাড়বে। অন্যান ছুটির দিনে সাধারণত ১৫ মিনিট বাদে বাদে মেট্রো পাওয়া যেত। কিন্তু আগামী কাল সেটার ব্যবধান বেড়ে যাচ্ছে। খুব প্রয়োজন না হলে ঘর থেকে বের না হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকরা।

অন্যদিকে শহরে সংক্রমণ রুখতে ক্রমশ আরও কড়া হচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যজুড়ে আগেই সিনেমা হল বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। করোনার সংক্রমণ রুখতে এবার রাজ্যের যাবতীয় রেস্তরাঁ, পানশালা, নাইট ক্লাব, ম্যাসাজ পার্লারের মতো প্রতিষ্ঠানগুলি বন্ধের নির্দেশ রাজ্য সরকারের। শনিবার দুপুরে নবান্ন থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করে একথা জানানো হয়েছে। জমায়েত এড়াতে এই সিদ্ধান্ত বলে জানানো হয়েছে। রেস্তরাঁ, পানশালা, নাইট ক্লাব, ম্যাসাজ পার্লারের পাশাপাশি মিউজিয়াম, পার্ক, চিড়িয়াখানাও বন্ধ থাকবে। আপাতত ৩১ মার্চ পর্যন্ত এই নির্দেশিকা জারি থাকবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here