farud

মহানগর ডেস্ক: দেশ যত ডিজিটাল হচ্ছে সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বদলাচ্ছে অপরাধের ধরন। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সাইবার এবং ব্যাঙ্ক প্রতারণার অভিযোগ এর সংখ্যা বাড়ছে লাফিয়ে লাফিয়ে। লকডাউনের পর থেকেই কলকাতা শহরে ব্যাঙ্ক প্রতারণার অভিযোগের সংখ্যা যেন বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় দ্বিগুণ। সেই সমস্ত অপরাধের রাশ টানতে সাইবার থানার ধাঁচেই এবার প্রথম ‘অ্যান্টি ব্যাংক ফ্রড’ থানা খুলতে চলেছে লালবাজার। কিছুদিন আগেই কলকাতা পুলিশের তরফে নতুন এই থানা খোলার প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল রাজ্য সরকারের স্বরাষ্ট্র দপ্তরের কাছে। সূত্রের খবর সেই প্রস্তাব গ্রহণ করার পর ইতিমধ্যেই নতুন থানা খোলার কাজও শুরু করে দিয়েছে কলকাতা পুলিশ। নির্বাচনের পরে ২০২১ সালের মধ্যেই লালবাজারের অন্দরে খোলা হতে পারে  নতুন এই অ্যান্টি ব্যাঙ্ক ফ্রড থানা। লালবাজারে স্পেশাল টাস্কফোর্স বা কলকাতা পুলিশের এসটিএফ থানা এবং সাইবার থানার পর এই নিয়ে তৃতীয় কোনো বিশেষ থানা হতে চলেছে। নতুন এই থানা চালু হলে কলকাতা পুলিশই দেশের মধ্যে সম্ভবত প্রথম কোনো পুলিশ কমিশনারেট হবে, যেখানে শুধুমাত্র ব্যাংক প্রতারণার অভিযোগের তদন্তের জন্য বিশেষ একটি থানা থাকবে।

ব্যাঙ্ক প্রতারণা সংক্রান্ত তদন্তের জন্য এতদিন কাজ করত কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগের অন্তর্গত অ্যান্টি ব্যাংক ফ্রড সেকশন। কিন্তু এবার সেই বিভাগ সেকশনের থেকে থানায় রূপান্তরিত হলে, তদন্তের অগ্রগতি বহুগুণ বৃদ্ধি পাবে বলে দাবি পুলিশের। গোয়েন্দা দপ্তরের এক আধিকারিক জানান, সেকশন থেকে থানায় রূপান্তরিত হলে এবার তারা নিজেরাই এফআইআর করার ক্ষমতা পাবেন। এতদিন সংশ্লিষ্ট থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের হওয়ার পর তারা প্রয়োজনে তদন্তভার হাতে নিতে পারতেন। কিন্তু এবার থেকে নিজস্ব থানা হওয়ায় ১৫৪ সিআরপিসি অনুযায়ী, নিজস্ব ক্ষমতা বলে তারাই মামলা দায়ের করে তদন্ত শুরু করতে পারবেন। পাশাপাশি বাড়ানো হবে বাহিনীর সংখ্যা, উন্নত হবে পরিকাঠামোও। নিয়ম অনুযায়ী থানায় রাখতে হবে একটি নিজস্ব লকআপও। সব মিলিয়ে খুব শীঘ্রই একটি পরিপূর্ণ থানার রূপ পেতে চলেছে অ্যান্টি ব্যাংক ফ্রড সেকশন। যেখানে দায়িত্ব সামলাবেন ব্যাঙ্ক প্রতারণা সংক্রান্ত অভিযোগের তদন্তে অভিজ্ঞ বাছাই করা অফিসারেরা। বিশেষ এই থানায় কাজ শুরু হলে নিত্যদিন ঘটে চলা ব্যাঙ্ক প্রতারণার মতো অপরাধে অনেকটাই রাশ টানা যাবে বলে মনে করছে কলকাতা পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here