পোর্ট ট্রাস্টের অধীনস্থ জমি যেন ডেঙ্গির আঁতুড়ঘর, সাফাই অভিযানে নেমে চটলেন ববি

0
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: এবার পোর্ট ট্রাস্টের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম। রবিবার সকালে চেতলায় নিজের ওয়ার্ডে সচেতনতা কর্মসূচিতে এসে পোর্টের অধীনে থাকা একাধিক এলাকায় জঞ্জাল পড়ে থাকতে দেখে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অভিযোগের সুরে জানান, বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কানে বারবার তুলেও কোনও লাভ হয়নি। পাল্টা প্রতিবাদ করলে কেন্দ্রীয় বাহিনীর ভয় দেখানো হয় বলেও অভিযোগ তাঁর।

ফিরহাদ ওরফে ববি হাকিম এদিন বলেন, ‘পোর্ট কর্তৃপক্ষ বোবা আর কালা। বারবার এই বিষয়ে সতর্ক করা সত্ত্বেও বোবা আর কালার মতো ব্যবহার করছে।’

ডেঙ্গু মোকাবিলায় প্রতি বছরের মতোই এবছরও কোমর বেঁধে নেমেছে পুরসভা। বাজার থেকে রাস্তা, জঞ্জালমুক্ত করতে ও সচেতনতা বাড়াতে নিজের ওয়ার্ডে বেরিয়েছিলেন মেয়র। তারপরই পোর্ট ট্রাস্টের জায়গায় ময়লা দেখে ক্ষুব্ধ হন তিনি।

স্থানীয়রা জানাচ্ছেন, জঞ্জাল জমে থাকায় সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে এলাকার মানুষকেই। আরও দাবি, রীতিমতো ডেঙ্গুর আঁতুরঘরে পরিণত হয়েছে পোর্টের অধীনে থাকা একাধিক ফাঁকা জায়গা। এই প্রসঙ্গে মেয়রের বক্তব্য, ‘পোর্টের জায়গাগুলো আমাদের দিয়ে দিতে বলেছিলাম। কোনও লাভ হয়নি। উল্টে কিছু বলতে গেলে সিআইএসএফের মার জুটছে। আধাসেনা দিয়ে ভয় দেখানো হচ্ছে।’

এমনকি পুরসভার কর্মীরা জঞ্জাল পরিষ্কার করতে এলেও তাদের বাধা দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ মেয়রের। ফিরহাদ বলেন, ‘ওরা নিজেরা জঞ্জাল পরিষ্কার করছে না। মানুষ অসুস্থ হচ্ছে। আর পুরসভার কর্মীরা সেটা করতে গেলে তাড়া করা হচ্ছে।’ এদিন সকালে বেরিয়ে বাজার, বস্তি সহ একাধিক এলাকা পরিদর্শন করেন মেয়র। এমনকি পুরসভার কর্মীদের সঙ্গে হাত লাগিয়ে নিজেই জঞ্জালও পরিষ্কার করেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here