মহানগর ওয়েবডেস্ক: সারা বিশ্বে খুব একটা প্রচলিত না হলেও, ধীরে ধীরে মানুষ পরিচিত হচ্ছেন চেস বক্সিংয়ের সঙ্গে। সেই চেস বক্সিংয়ের আন্তর্জাতিক নিয়ামক সংস্থার প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হলেন কলকাতার শিহান মন্টু দাস। গত মে মাসে প্রয়াত হন ওয়ার্ল্ড চেস বক্সিং অর্গানাইজেশনের প্রেসিডেন্ট ও খেলাটির আবিষ্কারক আইবিটি রুবিং। তারপরেই মন্টু দাসকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।

ভারতে প্রথম চেস বক্সিং শুরু করেন এই মন্টু দাস। ২০১১ সালে তিনি কলকাতায় প্রথম চেস বক্সিং ট্রেনিং সেন্টার খোলেন। সেখান থেকেই ধীরে ধীরে সারা দেশে পরিচিতি পায় এই খেলা। বর্তমানে ভারতীয় চেস বক্সিং সংস্থার প্রেসিডেন্টও শিহান মন্টু দাস।

এখন অনেকের মনে প্রশ্ন আসতেই পারে এই চেস বক্সিং কী? নামেই লুকিয়ে আছে উত্তর। চেস ও বক্সিংয়ের হাইব্রিড স্পোর্টস। বুদ্ধি আর শক্তির মিশেল। এই খেলায় মোট ১১টি রাউন্ড থাকে। ৫ রাউন্ডের বক্সিং আর ৬ রাউন্ডের দাবা।

প্রথম রাউন্ড শুরু হয় দাবা দিয়ে। এরপর অল্টারনেটিভ ভাবে চলতে থাকে রাউন্ড। দাবার রাউন্ডের সময় থাকে চার মিনিট, বক্সিং রাউন্ডের সময় তিন। আর প্রতি রাউন্ডের মাঝে এক মিনিটের ব্রেক। দুই ধরণের রাউন্ড মিলিয়ে যার স্কোর বেশি হয় সেই জেতে। কিন্তু দাবাতেও ফলাফল হল না, আবার বক্সিংয়েও পয়েন্ট সমান, সেক্ষেত্রে যে কালো ঘুটি নিয়ে খেলছে, সেই চ্যাম্পিয়ন হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here