kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: নারদকাণ্ডে এবার সরাসরি বিজেপি নেতা মুকুল রায়কে গ্রেফতারের পক্ষে সওয়াল করলেন তৃণমূলের প্রাক্তন সাংসদ কুণাল ঘোষ। এদিন মুকুলের এলগিন রোডের ফ্ল্যাটে আইপিএস এসএমএইচ মির্জাকে নিয়ে সিবিআই হানা দেয়। সিবিআই সূত্রে জানা যায়, মুকুলের সামনেই পুরো ঘটনার পুনর্নির্মাণ করা হয়েছে। এরপরই বেরিয়ে মুকুল দাবি করেন তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। মুকুলের এই তত্ত্বকেও ‘ভিত্তিহীন’ এবং ‘হাস্যকর’ বলে উড়িয়ে দিয়েছেন কুণাল।

মির্জাকে গ্রেফতার করার পরই মুকুল রায়ের দিকেই নজর গিয়েছিল সিবিআই কর্তাদের। শনিবার নিজাম প্যালেসে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদের পর এদিন সেই ফ্ল্যাটে গিয়েই পুরো ঘটনার পুনর্নির্মাণ করা হয় বলে দাবি সিবিআই সূত্রের। কেন্দ্রীয় সংস্থার দাবি, মুকুল রায়ের এই ফ্ল্যাটেই মোটা টাকার হাতবদল হয়। আর এদিন মুকুল রায়ের উপস্থিতিতেই ঘটনার পুনর্নির্মাণ করে তদন্তকারী অফিসাররা দেখতে চান কোন পথে মির্জা মুকুল রায়ের বাড়িতে ঢুকেছিলেন। কোথায় বসে মুকুল রায়ের সঙ্গে কথা হয়েছে? এর সমস্তটাই ভিডিওগ্রাফি করা হয়েছে বলে খবর সিবিআই সূত্রে।

প্রায় এক ঘণ্টা মুকুলের ফ্ল্যাটে সময় কাটিয়ে তারপর বেরোন সিবিআই আধিকারিকরা। সিবিআই দল চলে যাওয়ার পরে মুকুল রায় এদিনও ফের বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে। তবে ষড়যন্ত্র কী ভাবে করা হচ্ছে তা খোলসা করে বলেননি তিনি। মুকলের দাবি, ‘এই ঘটনায় আমি যুক্ত নই। আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে৷ আমাকে টাকা নিতে দেখা যায়নি।’

মুকুলের এই দাবিকে নস্যাৎ করে পাল্টা কুণাল বলেছেন, ‘মুকুল রায় যে ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব দিচ্ছেন সেটা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও হাস্যকর। কারণ তদন্ত করছে সিবিআই, তারা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীন। মুকুল রায় নিজে বিজেপিতে রয়েছেন এখন। ওনার বিরুদ্ধে সিবিআই কেন তদন্ত করতে যাবে। এটা বোগাস এবং হাস্যকর। মির্জা যে বয়ানটি দিয়েছেন, এটা তো বহুদিন আগেই আমরা ভিডিয়োতে দেখেছি। এটা তো অনেকদিন আগে থেকেই মির্জা বলে এসেছেন। ফলে মির্জা নতুন করে কারোর নাম দিয়েছেন সেটার কোনও অবকাশই নেই। মুকুলকে অবিলম্বে গ্রেফতার করা উচিত।’

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here