news bengali kolkata

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে জারি লকডাউন। বাংলা থেকে অসমে কাজ করতে গিয়ে আটকে পড়েছেন পশ্চিমবঙ্গের ১৫ জন শ্রমিক। নিজেরা রয়েছেন দুরাবস্থায়। না খেতে পেয়ে ভুগছে পরিবারের সদস্যরা। সকলেরই বাড়িতে রয়েছে শিশু ও বৃদ্ধ- বৃদ্ধা। এই অবস্থায় বাংলায় ফিরতে চেয়ে তাঁরা আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে।

একটি বেসরকারি কোম্পানির হয়ে অসম স্টেট ইলেকট্রিসিটি বোর্ড এবং রেলওয়ে বিদ্যুৎকরণের কাজে নিযুক্ত এই কর্মীরা। প্রায় ছয় মাস আগে বাংলা থেকে অসমে কাজে গিয়ে বঙ্গাইগাঁও- এর কাছে সরভোগে আটকে রয়েছেন তাঁরা।

লকডাউন-এর জেরে আটকে পড়ে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে কাতর আবেদন জানিয়েছেন তাঁরা। আর্জি, শীঘ্রই ঘরে ফেরার ব্যবস্থা যেন করা হয়। কারও বাড়িতে বৃদ্ধা মা আবার কারও বাড়িতে ছোট শিশু নিয়ে আছেন স্ত্রী। সকলেই পাশে চাইছেন বাড়ির কর্তাদের। কিন্তু ফেরার উপায় নেই। পরিবারকে বাঁচাতেই ফিরতে চাইছেন বাংলার শ্রমিকরা।

অসমের বঙ্গাইগাঁও-এর কাছে সরভোগে আটকে রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের শ্রমিকেরা।এর মধ্যে রয়েছেন কলকাতার তিনজন শ্রমিক। বেহালার বাসিন্দা শমীক রায় চৌধুরী বলেন, ‘মহারাষ্ট্রের শ্রমিকদের জন্য রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ব্যবস্থা নিয়েছেন। আমাদের মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীকে চিঠি দিয়ে থাকা ও খাওয়ার ব্যবস্থা করতে বলেছেন। অনেককে ফিরিয়ে আনছেন। যদি আমাদের দিকে তাকিয়ে দিদি বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা করে দেন তাহলে পরিবারকে বাঁচাতে পারি’।

জানা গিয়েছে, তাঁদের যে টুকু রোজগার জমানো ছিল। খাবার সংগ্রহে তাও প্রায় শেষের মুখে। আশঙ্কায় ভুগছেন বাংলার শ্রমিকরা। কোনওক্রমে জীবন বাঁচিয়ে পড়ে আছেন তাঁরা।

বেলঘরিয়ার দেব কুমার দাস বলেন, বাড়িতে বৃদ্ধা মা ও ছোট মেয়ে আছে। তাই দুশ্চিন্তায় আছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর কাছে তাঁর আর্জি, যত দ্রুত সম্ভব ঘরে ফেরার ব্যবস্থা করার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here