news bengali kolkata

নিজস্ব প্রতিবেদক, কলকাতা: পুলিশকর্মীর বিরুদ্ধেই উঠল খুনের অভিযোগ। তাও আবার নিজের কাকিমাকেই। ঘটনায় এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্ত পুলিশকে।

অভিযোগ, মদ্যপ অবস্থায় কলকাতা পুলিশের কর্মী শুভাশিস দত্ত (৪৫) খুন করেন নিজের কাকিমাকে। বৃহস্পতিবার রাতে অভিযুক্ত নিজের ঘরে বসে মদ্যপান করছিলেন। পাশের ঘরে পুজো দিচ্ছিলেন কাকিমা নমিতা দত্ত (৭২)। হঠাৎ করেই শুভাশিস হাতুড়ি নিয়ে ঠাকুর ঘরে ঢোকে। পেছন দিক থেকে চড়াও হয় কাকিমার ওপর। অভিযোগ, ক্রমাগত হাতুড়ি দিয়ে মারতে থাকে কাকিমাকে। মাথাতে বারবার হাতুড়ির বাড়ি মারা হয়। এরপরেই রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন নমিতা দেবী। মহেশতলার ২ নম্বর রবীন্দ্রনগর এলাকার এই ঘটনায় এলাকা জুড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে।

পরিবার ও স্থানীয়দের দাবি, শুভাশিস রোজই পরিবারের সকল সদস্যদের ওপর অকথ্য অত্যাচার চালায়। ঘটনার দিন খুনের পর অভিযুক্ত নির্লিপ্তভাবে নিজের বাড়িতে ঢুকে যান বলে দাবি পরিবারের সদস্যদের।

নমিতাদেবীর আর্তনাদ শুনে ঘরে ছুটে আসেন পরিবারের সদস্যরা। চিৎকার শুনে উপস্থিত হন পাড়ার লোকেরাও। স্থানীয়দের সহযোগিতায় গুরুতর আহতকে নিয়ে আসা হয় বিদ্যাসাগর হাসপাতালে। খবর দেওয়া হয় পর্ণশ্রী থানায়। পুলিশ এসে অভিযুক্তকে গ্রেফতার করে।

শুক্রবার সকালে মৃত্যু হয় নমিতা দেবীর। এলাকা জুড়ে শোকের ছায়া দেখা দিয়েছে। অভিযুক্ত পুলিশকর্মী শুভাশিসের কঠোর শাস্তির দাবি জানিয়েছে পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়রা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here