ডেস্ক: ছিলেন একসময়ের জোটসঙ্গী, কিন্তু নীতীশ কুমার এখন সখ্যতা বাড়িয়েছেন দিল্লির শাসক শিবিরে। অন্যদিকে, বন্ধু লালুর সঙ্গে বহুদিন আগেই মহাজোট ভেঙে বিজেপি পদ্মফুলে বসেছিলেন। কিন্তু এক সময়ের ঘনিষ্ঠ বিহারের এই দুই দাপুটে নেতা। তাই লালুর ছেলের বিয়েতে একমঞ্চে হাতেহাত দিয়েই দেখা গেল বিহারের দুই স্তম্ভকে। শুধু তাই নয়, দু’জনকে একসঙ্গে কিছুক্ষণ কথাও বলতে দেখা যায় এদিনের অনুষ্ঠানে। এদিন নবদম্পতিকে আশীর্বাদও করে নীতীশ।

নেহাত বিয়ের অনুষ্ঠান হলেও এই সাক্ষাতকে সহজ সমীকরণ রূপে দেখতে চাইছে না রাজনৈতিক মহল। মহাজোট ভেঙে নীতীশ বেরিয়ে আসার পর থেকেই তাঁকে ক্রমাগত দুষেছিলেন লালু। এমনকি ‘বিশ্বাসঘাতক’ বলেও তাঁকে আখ্যা দেন প্রাক্তন রেলমন্ত্রী। সেই অবস্থান বদলে দুজন একসঙ্গে হাত ধরার ফলে অনেকেই ফিসফাস শুরু করে দিয়েছেন যে, তবে কি ফের একবার বিহারে লালু নীতীশের জোট দেখা যেতে পারে?

দুই রাজনৈতিক নেতা অবশ্য এই নিয়ে মন্তব্য করতে নারাজ। মেডিক্যাল গ্রাউন্ডে ৬ সপ্তাহের ছুটি পেলেও পশুখাদ্য দুর্নীতি মামলায় জেলের খাঁড়া এখনও ঝুলছে লালু প্রসাদের মাথার উপর। অন্যদিকে, এনডিএ সরকারের বাকি শরিকদল গুলির দাবিদাওয়ার ফায়দা তুলতে ইতিমধ্যেই বিহারের জন্যও স্পেশাল স্টেটাসের দাবি করা শুরু করেছে নীতীশের দল জেডিইউ। ফলে আপাত দৃষ্টিতে এই সাক্ষাতকারকে রাজনীতির রঙ দেওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু ২০১৯ সালে যদি এনডিএ সরকারের পতন ঘটে তবে ফের একবার লালুর সঙ্গেই যে নীতীশ জোট বাঁধতে পারেন সেই ইঙ্গিতও পেয়ে গেলেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here