ডেস্ক: ভোটের ঠিক আগের দিন পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় বড়সড় ধাক্কা খেলেন আরজেডি সুপ্রিমো লালু প্রসাদ যাদব। তাঁর জামিনের আবেদন খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট।

কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা সিবিআই সুপ্রিম কোর্টকে যুক্তি দিয়েছে, লালু জামিন পেলে ভোটের কাজে অংশগ্রহণ করতে পারেন। সিবিআই-এর আরও অভিযোগ, শারীরিক অসুস্থতার কথা বলে আদালতকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছেন আরজেডি সুপ্রিমো। যদিও এদিন লালুর আইনজিবি কপিল সিব্বালের বক্তব্য, লালু প্রসাদকে ১৪ বছরের সাজার ঘোষণা করা হয়েছে। ২৫ বছর নয়, তিনি পালিয়ে যাচ্ছেন না। তাঁর উত্তরে প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ বলেন যে, ১৪ না ২৫ বছর সেটা হাইকোর্ট ঠিক করবে। তখন কপিল সিব্বাল পাল্টা আদালতকে জিজ্ঞাসা করেন যে, লালুকে জামিন দিলে কী ক্ষতি হবে তখন প্রধান বিচারপতি উত্তর দেন, তিনি পশুখাদ্য মামলায় দোষী সাব্যস্ত এটা ছাড়া আর কোনও বিপদ নেই। কিন্তু তাঁর জামিনের আবেদন আমরা মঞ্জুর করতে পারব না।

 

উল্লেখ্য, সিবিআই-এর অভিযোগ যে হাসপাতালে শুয়েই লালুপ্রসাদ নিরররবাচন পরিচালনার পরিকল্পনা করছেন। ১৯৮০ সালে বিহারের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন তাঁর বিরুদ্ধে বিপুল টাকার পশুখাদ্য কেলেঙ্কারির অভিযোগ ওঠে। এর পাশাপাশি ২০১৭ সালে দুমকা ট্রেজারি মামলায় তাঁর ১৪ বছরের সাজা ঘোষণা করে শীর্ষ আদালত। তবে বারবার শারীরিক অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে হাসপাতালে থেকেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here