টানাপোড়েনের অবসান, নানুরে নিহত বিজেপি কর্মীর শেষকৃত্য কাটোয়ার উদ্ধারাণপুর ঘাটে

0
29
kolkata bengali news

নিজস্ব প্রতিবেদক, সিউড়ি: অবশেষে নিহত বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহর টানাপোড়েনের অবসান। পুলিশ বিজেপি ও স্বরূপের পরিবারের বোঝাপড়ার পর মঙ্গলবার রাত্রি ১১:১৫মিনিট নাগাদ গ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা দেয় স্বরূপের মৃতদেহ। বোলপুরের অতিরিক্ত জেলা পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী পথ নির্দেশিকার মধ্য দিয়ে নানুরের রামকৃষ্ণপুর গ্রামে নিহত বিজেপি কর্মী দেহ নিয়ে যাওয়া হয়। একই সঙ্গে গ্রামে যান বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খাঁ, বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা, বীরভূম জেলার বিজেপির সভাপতি শ্যামাপদ মন্ডল। রওনা দেওয়ার আগে মহকুমা হাসপাতালের সামনে বিজেপি নেতৃত্ব তরফ থেকে নিহত স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহ পুষ্পস্তবক দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হয়। এদিন সকালে নিহত স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহ নিয়ে শোক মিছিল হয় এলাকায় এবং দুপুরে শেষকৃত্য সম্পূর্ণ হবে পূর্ব বর্ধমান জেলার কাটোয়ার উদ্ধারাণপুর গঙ্গার ঘাটে।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় নানুর থানার রামকৃষ্ণপুর গ্রামে মনসা পুজো উপলক্ষ্যে একটি জলসা হচ্ছিল। ওই জলসায় হাজির ছিলেন স্থানীয় বিজেপি কর্মীরা। হঠাৎ করেই সেই জলসা চলাকালীনই সেখানে বোমাবাজি, গুলিবর্ষণ শুরু হয়। স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা বোমা, মাস্কেট নিয়ে তাদের কর্মীদের উপর হামলা চালায়, গুলিবর্ষণও করে। সেই ঘটনার জেরেই গুলিবিদ্ধ হন স্বরূপ গড়াই। এছাড়া আরও দুই বিজেপি কর্মী বোমার আঘাতে আহত হন। তারপর নানুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে স্বরূপ গড়াইয়ের অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে কলকাতার হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। যদিও শেষরক্ষা হয়নি। রবিবার রাতে কলজাতার হাসপাতালেই মৃত্যু হয় স্বরূপ গড়াইয়ের।

kolkata bengali news

এই মৃত্যু ঘিরে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বীরভূম জেলার রাজনীতি। নানুর থানার পুলিশ অবশ্য ইতিমধ্যে গুলি চালনার এই ঘটনায় আলো চৌধুরী ও তুফান দাস নামে দুই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে। যদিও বিজেপির দাবি এই ঘটনার মূল অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা করিম খানকে এখনও গ্রেফতার করেনি পুলিশ। যদিও বিজেপির অভিযোগ অস্বীকার করেছেন করিম নিজে। তার দাবি, বিজেপির গোষ্ঠীকন্দোলের জেরেই গুলি চালনা ও বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছিল। তার সঙ্গে তৃণমূলের কোন যোগসুত্র নেই। ইচ্ছাকৃত ভাবে তাকে এই মামলায় ফাঁসানোর জন্য বিজেপি নেতৃত্ব তার দিকে আঙুল তুলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here