kolkata bengali news

ডেস্ক: ১৫ বছর বয়সে জীবনের সবথেকে বড়ো আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। মন থেকে একেবারে ভেঙে পড়েছিলেন। আত্মবিশ্বাস, আনন্দ, জীবন এই সবকিছুই মুছে গেছিল তাঁর জীবন থেকে। কিন্তু তিনি শক্ত ছিলেন, লড়েছেন পরিস্থিতির সঙ্গে। তিনি আজ সবার অনুপ্রেরণা, সাহস জুগিয়েছেন আমাদের মনে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় লড়তে শিখিয়েছেন যিনি, তিনি হলেন লক্ষ্মী আগরওয়াল। তিনি হলেন মূলকেন্দ্র বিন্দু। কোটি কোটি মহিলার মনে সাহস জুগিয়েছেন লক্ষ্মী। তাঁর জীবনের কাহিনীকে পর্দায় ফুটিয়ে তোলার দায়িত্ব নিয়েছেন অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন। পরিচালনা করছেন মেঘনা গুলজার।

নিজের জীবনের অজানা কথা জানালেন সবাইকে তিনি বলেন, স্কুলে আমি কোনওদিনও মেডেল পাইনি। কিন্তু জীবনের যুদ্ধে তা আমি অর্জন করেছি। কেই বা ভেবেছিল আমাকে নিয়ে ছবি করা হবে? আমার সংগ্রামকে তুলে ধরা হবে ছবিতে। ধন্যবাদ জানাই মেঘনাজিকে, যিনি আমার কাজকে সম্মান জানিয়েছেন এবং এই বিষয় নিয়ে ছবি করছেন। গল্পতে শুধু আমি নই, আমার মতো হাজার হাজার মেয়েরা অ্যাসিড আক্রমণের শিকার হয়েছেন। তাদের উদ্দেশে বলতে চাই, তোমরা হার মানবে না। এগিয়ে যাও সঙ্গে আছি।

তিনি আরও বলেন, আমি গর্বিত যে দীপিকার মতো একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী আমার চরিত্রে অভিনয় করছেন। একটা কথাই বলতে চাই, এই ছবিটি সেই ব্যক্তির জন্য যে ভেবেছিল আমার মুখ এবং জীবন ধ্বংস করে বেঁচে যাবে। কিন্তু না, এই ছবিটি তার মুখে কষিয়ে থাপ্পড় মেরেদিল। পাশাপাশি সমাজকেও বার্তা দেওয়া হল যারা ভেবেছিলেন আমি আপরাধী। মার্চের শুরুর দিকেই দীপিকা ‘ছপ্পাক’ ছবির প্রথম লুক প্রকাশ্যে আনেন। তিনি জানান, এই চরিত্র সবসময় আমার সঙ্গে থাকবে। আগামী বছরের ১০ জানুয়ারি ছবিটি মুক্তি পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here