মহানগর ওয়েবডেস্ক: গত মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বেইরুটে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। ভয়াবহ সেই দুর্ঘটনায় মারা যান ২০০’র বেশি মানুষ। সেই ঘটনার পর থেকেই প্রবল চাপের মুখে ছিল লেবানন সরকার। অবশেষে প্রবল জনরোষের মুখে গোটা মন্ত্রিসভাই পদত্যাগ করল। গতকাল রাতে জাতীয় টিভি চ্যানেলে এই ঘোষণা করেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী হাসান দিয়াব।

গত মঙ্গলবার বেইরুটের বন্দর এলাকায় রাখা ২৭৫০ টন আমোনিয়াম নাইট্রেটে বিস্ফোরণ ঘটে। অসুরক্ষিত ভাবে ওই বিশাল পরিমাণ রাসায়নিক পদার্থ রাখার জন্যই এই দুর্ঘটনা। এরপর থেকেই গোটা লেবানন জুড়ে পথে নামে সাধারণ মানুষ। দুর্নীতিগ্রস্ত ও অপদার্থ সরকারের পদত্যাগের দাবি জানায় তারা। অবশেষে বিশাল চাপের মুখেই পদত্যাগ করে গোটা সরকার। যদিও সেদেশের রাষ্ট্রপতি নতুন সরকার গঠন না হওয়া পর্যন্ত এই সরকারকে দায়িত্ব সামলাতে বলেছেন।

প্রসঙ্গত, বিস্ফোরন নিয়ে বিশেষজ্ঞদের অনুমান শুধুমাত্র অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট নয়, সেখানে বহুমাত্রায় বাজিও রাখা ছিল। প্রথমে সেই বাজিতে আগুন লাগার ফলে মুহূর্তের মধ্যে আগুন ছড়িয়ে পড়ে চারিদিকে। তারপর সেই আগুন অ্যামোনিয়াম নাইট্রেটের সংস্পর্শে আসায় ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণ ঘটায়। জানা গিয়েছে, জর্জিয়া থেকে মোজাম্বিক গামী একটি জাহাজ আইনি জটিলতার কারণে সেই বন্দরে আটকে ছিল ২০১৪ সাল থেকে। ওই জাহাজেই ছিল ওত পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট।

জঙ্গি হামলার আশঙ্কা করার সঙ্গে সঙ্গেই আঙ্গুল উঠতে শুরু করেছিল ইজরায়েলের দিকে। যদিও এই ঘটনায় তাদের কোনো হাত নেই এমন স্পষ্ট করেছে ইসরাইল সরকার। যদিও বিস্ফোরণের ভয়াবহতা এতটাই ছিল যে এটিকে জঙ্গি হামলা ছাড়া অন্য কিছু মনে করা যাচ্ছিল না প্রথমে। কারণ বিস্ফোরণের শব্দ ২০০ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত ছড়িয়ে পড়েছিল।

একদিকে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি, অন্যদিকে এই ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণ। সব মিলিয়ে এই মুহূর্তে লেবানন কার্যত বিপর্যস্ত। ভাইরাস সংক্রামিত রোগীদের জন্য হাসপাতাল পরিপূর্ণ। এই সময় বিস্ফোরণে আহত মানুষদের নিয়ে হিমশিম খায় সেখানকার সরকার। প্রাথমিক যে রিপোর্ট সামনে এসেছে সেখানে দেখা গিয়েছে ঘরছাড়া অবস্থায় রয়েছেন ২ লক্ষ মানুষ। বিগত কিছু বছর ধরেই অর্থনৈতিক মন্দায় জর্জরিত লেবানন। এখন করোনাভাইরাস পরিস্থিতির সঙ্গে বিস্ফোরণের ঘটনা লেবাননের সার্বিক চিত্র সম্পূর্ণভাবে বদলে দিয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here