kolkata news

নিজস্ব প্রতিনিধি: ব্রিগেড সমাবেশে তেমন নামভারী কোনও বক্তা নেই। চিকিৎসকদের অনুমতি না পেয়ে ব্রিগেডে থাকতে পারছেন না প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচর্য। এরপরেও ব্রিগেডে কর্মী সমর্থকদের ভিড় ছিল চোখে পড়ার মতো। সম্প্রতি অত্যন্ত জনপ্রিয় হওয়া টুম্পা সোনার প্যারেডি তৈরি হয়েছিল ব্রিগেডে যাওয়ার জন্য। এবার ব্রিগেডে আসা সিপিআইএমের কর্মী সমর্থকদের প্ল্যাকার্ড দেখা গেল সেই টুম্পাকে নিয়ে। ব্রিগেডে আসা কিছু কিছু কর্মী সমর্থকদের প্ল্যাকার্ডে লেখা আছে, ‘টুম্পা সোনা এসে গেছি।’

এই প্রথম বাম-কংগ্রেসের ব্রিগেডের সমাবেশ। এই ব্রিগেডে বাম কংগ্রেসের সঙ্গে থাকছে ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট। বিধানসভা নির্বাচন নিয়ে আসন এখনও চূড়ান্ত রফা হয়নি। তবে আইএসএফের প্রধান আব্বাস সিদ্দীকি ব্রিগেডে থাকবেন বলে জানা যাচ্ছে। তাই এবারের ব্রিগেড অন্যরকম। বামেদের পতাকার পাশাপাশি কংগ্রেস বা আইএসএফের পতাকা নিয়ে রবিবার সকাল থেকেই ব্রিগেডমুখী রাজ্যের মানুষ।

ব্রিগেডের প্রধান বক্তার তালিকায় সীতারাম ইয়েচুরির সঙ্গে থাকছেন অধীর চৌধুরী। বিভিন্ন জেলা থেকে কর্মী সমর্থকদের বাস ইতিমধ্যে কলকাতায় পৌঁছতে শুরু করেছে। শুধু বাসে নয়, ব্রিগেডে কর্মী সমর্থকরা রেল ও জলপথেও ব্রিগেডমুখী হয়েছেন। হাওড়া থেকে যেসমস্ত ট্রেনে কর্মী- সমর্থকেরা আসছেন, তাঁরা মূলত হাওড়ার জেটিঘাট ব্যবহার করছেন। মূলত বীরভূম, বর্ধমানস হুগলি থেকে আসা কর্মী সমর্থেকরা হাওড়ার দুই নম্বর জেটিঘাট থেকে বাবুঘাটের দিকে রওনা দিচ্ছেন।

ট্রেনে শিয়ালদহ, সেখান থেকে বহু মানুষ ব্রিগেডমুখী হয়েছেন। গতকাল রাত থেকেই ব্রিগেড সমাবেশের জন্য কর্মী-সমর্থকেরা জড়ো হতে শুরু করেছেন। গত কাল রাতে যাঁরা শিয়ালদহে পৌঁচেছেন, তাঁরা মূলত দুইভাগে ভাগ হয়ে গিয়েছে। একদল কাল রাতেই ব্রিগেডমুখী হয়েছেন। আর একদল রবিবার ভোরে ব্রিগেডমুখী হয়েছেন। ব্রিগেড সমাবেশের জন্য বাম শিবিরের তরফে বেশ কিছু তাঁবু করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here