news kolkata library

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা আতঙ্কের জেরে পাঠকদের জন্য বন্ধ হয়ে গিয়েছে আলিপুরের জাতীয় গ্রন্থাগারের ফটক। এতে সমস্যায় পড়েছেন নিয়মিত পড়ুয়া এবং গবেষকদের একাংশ। তাঁরা যাবেন কোথায়? তাঁদের ভরসা শহরের অন্য বড় গ্রন্থাগার। কিন্তু কী অবস্থা কলকাতার অন্য গ্রন্থাগারগুলোর?

কলকাতার অন্যতম বৃহৎ গ্রন্থাগার দক্ষিণ কলকাতার রামকৃষ্ণ মিশন কালচারাল ইনস্টিটিউটের। মোট সদস্য সংখ্যা প্রায় ৩৫ হাজার। প্রতিদিন সেখানে দেড় হাজারের ওপর পাঠক আসেন। কিন্তু সেখানেও কিছু কড়াকড়ি শুরু হয়েছে। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে প্রধান গ্রন্থাগারিক স্বামী দিব্যবিভানন্দ জানান, “আমাদের পাঠকক্ষে প্রায় ২৪০টি জায়গা আছে। এর প্রায় অর্ধেক কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ পাঠকের পারস্পরিক ব্যবধান বেড়েছে।”

এ ছাড়াও ওখানে যাঁরা গ্রন্থাগারে আসছেন, তাঁদের অনুরোধ করা হচ্ছে খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া গ্রন্থাগারে না আসার জন্য। যতটুকু না থাকলেই নয়, গ্রন্থাগারে ততক্ষণ থাকার আবেদন জানানো হচ্ছে। এ কথা জানিয়ে স্বামী দিব্যবিভানন্দ বলেন, “আমরা যা করি বেলুড়মঠের নির্দেশেই করি। সেখান থেকেই বলে দেওয়া হয়েছে যথাসম্ভব জনসমাগম নিয়ন্ত্রণে রেখে পরিষেবা দিতে। গোলপার্কে তাই-ই করছি আমরা।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here