ডেস্ক: কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচন যত এগিয়ে আসছে , বিজেপিও যেন ক্রমশ ততটাই ব্যাকফুটে চলে যাচ্ছে। প্রথমবার মুখ ফস্কে ও দ্বিতীয়বার অনুবাদকের ভুলে এমনিতেই দলকে আত্মঘাতী গোল খাইয়ে দিয়েছেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। নির্বাচনের আগে এবার আরও একধাপ এগিয়ে গেল কংগ্রেস। স্পষ্টত ভোটব্যাঙ্কের জন্য নির্বাচনের আগেই কর্ণাটকের লিঙ্গায়ত সম্প্রদায়কে আলাদা ধর্মের স্বীকৃতি দিয়েছিল শাসকদল কংগ্রেস। এবার কংগ্রেসের সেই পদক্ষেপ কার্যত তাদের পক্ষেই গেল। লিঙ্গায়তদের ২২০টি মঠের মঠাধীশ জানিয়ে দিয়েছেন আসন্ন কর্ণাটক বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসকেই সমর্থন করবেন তারা।

অন্যদিকে, হিন্দু ধর্মকে বিভক্ত করে আলাদা সম্প্রদায় তৈরি করার এই চেষ্টা যে বিজেপি বরদাস্ত করবে না তা আগে থেকেই জানিয়ে দিয়েছিল তারা। বিজেপির এই অবস্থানে তাদের উপর খুব একটা সন্তুষ্ট ছিলেন না লিঙ্গায়ত মঠের মঠাধীশরা। এই নিয়ে নিশ্চিত সিদ্ধান্তে আসতে গতকাল বিজেপির ওপর ক্ষুব্ধ ২২০টি লিঙ্গায়ত মঠের মঠাধীশ বৈঠকে বসেন। বৈঠকের পর জানিয়ে দেওয়া হয়, এবারের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসকেই সমর্থন করবেন তারা। এর ফলে লিঙ্গায়ত সম্প্রদায়ের সিংহভাগ ভোটই কংগ্রেসের ঝুলিতে আসবে বলেন মনে করা হচ্ছে। তবে কয়েকদিন আগেই অবশ্য অমিত শাহ জানিয়ে দিয়েছিলেন, দিল্লিতে যতদিন এনডিএ সরকার রয়েছে, ততদিন লিঙ্গায়তদের আলাদা সম্প্রদায়ের মান্যতা দেওয়া হবে না। সবমিলিয়ে নির্বাচনের দিন ঘোষণা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই চরম সংঘাত শুরু হয়েছে বিজেপি-কংগ্রেসে। এবং এই সংঘাতের মধ্যে আপাতত ফ্রন্টফুটে এগিয়ে রাহুলের দলই।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here