মহানগর ওয়েবডেস্ক: লকডাউন চলছে, কিন্তু দেশজুড়ে ক্রমবর্ধমান করোনা আতঙ্কে রাশ যায়নি কোনোভাবেই। যেভাবে করোনা আক্রান্তের হার বেড়ে চলেছে, তার জেরে মানুষের মনে তৈরি হয়েছে লকডাউনের সময়সীমা আরও বাড়ার আশঙ্কা। এমন একটি পরিস্থিতির মাঝেই উচ্চপদস্থ সরকারি আধিকারিকদের তরফে জানা গেল আরও দুই সপ্তাহের জন্য হয়তো বাড়ানো হতে পারে লকডাউন।

ইতিমধ্যেই একাধিক রাজ্য সরকার কেন্দ্রের কাছে লকডাউন বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন। বিশেষজ্ঞদের তরফেও দাবি করা হয়েছে এমনটাই। মহারাষ্ট্র তেলেঙ্গানা, পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশ সহ একাধিক রাজ্য সরকার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কাছে অনুরোধ জানিয়েছেন লকডাউনের সময়সীমা বাড়াতে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স বৈঠকের সময় তাদের সে দাবি ভেবে দেখার কথা বলেছিলেন নরেন্দ্র মোদী। সেইমতো কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার তরফে একাধিকবার বৈঠকও করা হয়। মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার ১৪ জন মন্ত্রী লকডাউন পরিস্থিতি বাড়ানো যাবে কিনা তা নিয়ে বৈঠকে বসেন। এই বৈঠকের শীর্ষে ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। দীর্ঘ বৈঠকের পর ‘হিন্দুস্থান টাইমস’-এর দাবি অনুযায়ী, সরকারি সূত্রে জানা গেছে, বাড়ানো হতে পারে লকডাউনের সময়সীমা।

এই বৈঠকে লকডাউন চলবে কিনা তা নিয়ে আলোচনার পাশাপাশি, দেশের অর্থনৈতিক ক্ষয়ক্ষতির বিষয়গুলোর দিকে নজর দেওয়া হয়েছে। তুলে ধরা হয়েছে এই পরিস্থিতিতে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা কোন কোন সেক্টরের। কী কী সমস্যার মুখোমুখি হচ্ছেন মানুষ। এবং লকডাউন তুলে নিলেও কোনভাবেই ট্রেন বাস ও বিমান পরিষেবা চালু রাখা যাবে না বলেও স্পষ্ট করে দেওয়া হয়েছে বৈঠকে। সমস্ত আলোচনা বিস্তারিত রিপোর্ট শীঘ্রই প্রধানমন্ত্রীর কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে সূত্র। পাশাপাশি বর্তমান পরিস্থিতি বিচার করে শীর্ষ আধিকারিকদের তরফে জানা যাচ্ছে, এমন পরিস্থিতিতে হয়তো দুই সপ্তাহের জন্য ফের বাড়ানো হতে পারে লকডাউন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here