নিজস্ব প্রতিবেদক, আসানসোল: কাঁকসায় বিজেপি কর্মী খুনে সরাসরি তৃণমূলের কয়লা মাফিয়াদের হাত রয়েছে, এই অভিযোগ তুলে সিবিআই তদন্তের দাবি করলেন বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। এদিন মূল অভিযুক্ত সঈফুলকে এখনও পর্যন্ত কেন গ্রেফতার করা হলনা তা নিয়ে প্রশ্নও তোলেন বিজেপি নেত্রী। সোমবার দুর্গাপুরে নিহত বিজেপি কর্মী সন্দীপ ঘোষের দেহ ঘিরে মিছিল করতে গেলে উত্তেজনা ছড়ায় আসানসোল জেলা হাসপাতাল চত্বরে। পুলিশ বাধা দিতে গেলে বিজেপি ও পুলিশের মধ্যে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে পুলিশ। এরপর গাড়ি থেকে মৃতদেহ বের করে আসানসোল জেলা হাসপাতাল ঢোকার মুখে এসবি গরাই অবরোধ করে দেয় বিজেপি কর্মীরা। প্রায় দেড়ঘন্টা এই অবরোধ চলে। হাসপাতালে ঢোকার মুখে বাধার সম্মুখীন হয় রোগীরা। পুলিশের পক্ষ থেকে অনুরোধ করা হলেও বিজেপির নেতাকর্মীরা তা শোনেন নি।

তাদের দাবি ছিল হটন রোড দিয়ে মিছিল করে দলীয় অফিসে মৃতদেহ নিয়ে যেতে দিতে হবে। শেষ পর্যন্ত ঘটনাস্থলে আসেন লকেট চট্টোপাধ্যায়। শেষে মানবিক কারণে রোগীদের ঢুকতে অসুবিধে হচ্ছে বলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়। মৃতদেহ নিয়ে রওনা হয় দুর্গাপুরে। সেখানেই বাকি কার্যক্রম হবে। লকেট চট্টোপাধ্যায় সরাসরি এই ঘটনায় বিজেপিকে দোষী সাব্যস্ত করে সিবিআই তদন্ত চেয়েছেন। আগামিকাল দুর্গাপুর মহকুমা জুড়ে খুনের ঘটনার প্রতিবাদে ১২ ঘণ্টার বনধ ডেকেছে বিজেপি।

প্রসঙ্গত, রথযাত্রা কর্মসূচি সংক্রান্ত বৈঠক সেরে বাড়ি ফেরার পথে দুষ্কৃতীদের গুলিতে খুন হন বিজেপিরবুথ সভাপতি। ঘটনায় জখম হন আরও এক বিজেপি কর্মী। বিজেপির পক্ষ থেকে গোটা ঘটনায় তৃণমূলের বিরুদ্ধে অভিযোগ করা হয়। তৃণমূলের তরফে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়। গোটা ঘটনায় এখনও পর্যন্ত তিনজন গ্রেফতার করা হলেও একজনও এখনও অধরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here