ডেস্ক: ঋণ নেওয়া টাকা ফেরত দিতে পারব না, এবার নতুন চাকরি খোঁজা শুরু করুন। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের কর্মীদের এবার এরম ভাবেই হুঁশিয়ারি দিলেন পলাতক নিরব মোদী। ভারতের ‘ডায়মন্ড কিং’ হিসাবে পরিচিত ধনকুবের নিরবের সাফাই, তাঁর সমস্ত ব্যবসা, শো-রুম সিল করে দেওয়া হয়েছে। তাই ঋণের টাকা বা বয়েকা বেতন কোনোটাই মেটান সম্ভব নয় তাঁর পক্ষে।

কোম্পানির কর্মীদের উদ্দেশ্যে একটি খোলা চিঠিতে নিরব লিখেছেন, ”আমার সকল কারখানা ও শো-রুম সিল করে দেওয়া হয়েছে। আমার সমস্ত আর্থিক লেনদেনের উপরও নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে দেওয়া হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আপনাদের বয়েকা বেতন মেটান আমার পক্ষে সম্ভব নয়। তাই আমার মনে হয় আপনাদের এবার বিকল্প চাকরি খুঁজে নেওয়া উচিত।” বিকল্প চাকরি খোঁজার পরামর্শ ছাড়াও সহকর্মীদের উদ্দেশ্য করে ধন্যবাদ জানিয়েছেন নিরব। খোলা চিঠিতে তিনি আরও লিখেছেন, ”আপনাদের সবার ঘাম, রক্ত এবং পরিশ্রমের ফল আমার সংস্থার সাফল্য। আপনাদের সততার জন্যই আমাদের সংস্থা ক্রেতা ও বিক্রেতাদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পেরেছে। আমাদের বিরুদ্ধে একটা ষড়যন্ত্র চলছে। আশা করছি খুব তাড়াতাড়ি দুঃসময় কাটিয়ে উঠতে পারব।”

ঋণের টাকা যে তিনি শোধ করতে পারবেন না একথা আগেই জানিয়েছেন নিরব মোদী। এবার আরও বড় কোপ নেমে আসলো তাঁর সংস্থার কর্মচারিদের উপর। জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই কয়েক মাসের বেতন বকেয়া রয়েছে মোদীর বিভিন্ন কোম্পানির কর্মীদের। পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কে ১১,৪০০ কোটি টাকার আর্থিক কেলেঙ্কারির অভিযোগে আপাতত দেশ ছাড়া রয়েছেন মোদী। কখনও শোনা যাচ্ছে তিনি আমেরিকায়, কখনও বা লন্ডন, কখনও বা বেলজিয়াম। এই আর্থিক কেলেঙ্কারির কোপে ইতিমধ্যেই ব্যাবসা লাটে ওঠার জোগাড় হয়েছে পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের। আস্থা হারিয়ে ফেলেছেন গ্রাহকেরা। অন্যদিকে তাঁর আইনজীবীর দাবি, নিরব নির্দোষ।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here