ডেস্ক: একদিকে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিং চৌহান সাধু-সন্ন্যাসীদের রাজনৈতিক পরিচিতি দেওয়া নিয়ে তীব্র নিন্দার মুখে পড়েছেন। অন্যদিকে সেখানকারই সদ্য পদপ্রাপ্ত আরেক মন্ত্রী অখিলেশ্বরানন্দ গো-মন্ত্রাণালয়ের দাবি তুলে নতুন করে বিতর্কে খোরাক জুগিয়েছেন। তিনি বলেছেন, যাতে গরু সহ অন্যান্য পশুদের যথাযথভাবে দেখভাল করা হয় সেই উদ্দেশ্যেই তাঁর এই দাবি।

গো সুরক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অখিলেশ্বরানন্দকে গত সপ্তাহেই মন্ত্রীর পদে বসানো হয়েছিল। তাঁর দাবি চেয়ারম্যান পদে থাকাকালীন তাঁর ভালো কাজের জন্য এই পদে বসানো হয়েছে। ফলে তিনি এখন থেকে গো সুরক্ষার উপর বেশী করে নজর দেবেন। এই কাজের পাকাপাকি একটি ব্যবস্থা করার জন্যই সরকারের কাছে গো-মন্ত্রণালয় গঠনের দাবি জানিয়েছেন। অখিলেশ্বরনন্দ আরও বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী নিজে একজন কৃষক। আমার লোকেরা তাঁকে সব বিষয়ে সাহায্য করতে চান। আর এই ব্যাপারে আমি মানুষের পূর্ণ সমর্থন পেয়েছি।’

অখিলেশ্বরানন্দের এই দাবী প্রকাশের পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁকে নিয়ে শুরু হয় ট্রোলড। তবে এটা নতুন কোনও বিষয় নয়। এর আগে ২০১৭ সালে বিশ্ব হিন্দু পরিষদও কেন্দ্রের কাছে গো মন্ত্রকের দাবি তুলেছিল। ২০১৩ সালে নাগাদ রাজস্থানে একবার বিজেপি গো-মন্ত্রক গঠনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল। যদিও তা বাস্তবে কার্যকরী হয়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here