Mandatory Credit: Photo by Richard Young/REX/Shutterstock (6897610s) Madonna Edward Enninful OBE Party, Mark's Club, Mayfair, London - 27 Oct 2016

মহানগর ওয়েবডেস্ক: ম্যাডোনা নামটি শুনলেই কানে ভেসে আসে ‘লাইক আ প্রেয়ার’, চোখের সামনে জীবন্ত হয়ে অসম্ভব যৌন আবেদনময়ী এক গায়িকা–অভিনেত্রীর ছবি যিনি মঞ্চে উঠে কণ্ঠ ও শরীরী আবেদনে আগুন ধরিয়ে দিতে পারতেন পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে। তাঁকে দেখে কখনওই মনে হত না প্রকৃতি একটা একটা করে বসন্ত তাঁর ওপর দিয়ে পার করিয়ে দিচ্ছে।

গত মার্চ মাস থেকে তিনি হাঁটুর আঘাতে অধিকাংশ সময়ই গৃহবন্দি। চিকিৎসা চলছে। কিন্তু আর দশজন গড়পড়তা মানুষের মতো কখনওই হতে পারেন না লক্ষ লক্ষ পুরুষের রাতের ঘুম কেড়ে নেওয়া ইতালীয় গায়িকা, কখনওই তিনি দীর্ঘদিন ধরে সরে থাকতে পারেন না আলোর বৃত্তের বাইরে।

তাই তিনি ক্রাচে ভর দিয়ে উঠে দাঁড়ালেন। ধীরে ধীরে এসে দাঁড়ালেন আয়নার সামনে। একটানে খুলে ফেললেন পরে থাকা ‘টপ’। ক্রাচে ভর দিয়ে হাতে ধরা মোবাইল ক্যামেরাটি তাক করলেন আয়নায়। এক মুহূর্ত অপেক্ষা। একটু কি লজ্জা পাচ্ছেন ‘প্রৌঢ়া’? এবার দুটো হাতের পাতা বুকের সামনে এনে মোবাইল ফোনটিকে ধরলেন। ব্যস, আর কোনও দ্বিধা নেই। ক্যামেরার বাটনে আলতো করে ছোঁয়ালেন আঙুল। ৬১ বছরের যুবতী আবারও ঝড় তুলে দিলেন দুনিয়া জুড়ে।

লম্বা সোনালি চুল নেমে এসেছে বুকের ওপর, মাথায় একটু তেরচা করে পরা টুপি। মোহময়তা ছড়িয়ে রেখেছেন চোখে। আবরণ বলতে একটুকরো অন্তর্বাস। ছবির নীচে লিখে দিলেন ”সকলের একটা ক্রাচ আছে।”

মার্চ মাসে স্টেজে পড়ে গিয়ে গায়িকা হাঁটুতে আঘাত পান। নিজের ইনস্টাগ্রামে দুর্ঘটনার কারণ হিসেবে ভুল করে একটি চেয়ার সরিয়ে নেওয়ার কথা উল্লেখ করেছিলেন। এপ্রিল মাসে তার কোভিড–১৯ অ্যান্টিবডি পরীক্ষার ফল পজেটিভ বেরিয়েছিল। কিছুদিনের মধ্যেই কোয়ারেন্টিন ভেঙে বেরিয়ে এসে ফটোগ্রাফার স্টিফেন ক্লিনকে জড়িয়ে ধরে ‘কোভিড–১৯’ কেক উপহার দিয়েছিলেন গায়িকা।

ম্যাডোনা জানেন কীভাবে সংবাদের শিরোনামে থাকতে হয়, তার জন্য অতিমারীর নিয়ম বা পরে থাকা ‘টপ’, সবকিছুই যে কোনও সময় অবলীলায় ছুড়ে দিতে পারেন এই ষাটোর্ধ্ব যুবতী।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here