kolkata bengali news

ডেস্ক: ভারতে পদার্পণের পর থেকেই টিকটক অ্যাপ নিয়ে বিস্তর জলঘোলা শুরু হয়েছিল। এবার টিকটক অ্যাপ নিষিদ্ধ করার জন্য কেন্দ্রকে নির্দেশ দিল মাদ্রাস হাইকোর্ট। টিকটক অ্যাপের মাধ্যমে আসলে পর্নোগ্রাফিকেই উৎসাহদান করা হচ্ছে। পাশাপাশি, সকল সংবাদমাধ্যমকেও ঐ টিকটক অ্যাপ দ্বারা তৈরি করা কোনও ভিডিও ব্যবহার করা থেকেও বিরত থাকতে বলেছে মাদ্রাস হাইকোর্ট।

বেশকিছুদিন আগে মাদুরাইয়ের আইনজীবী ও সমাজকর্মী মুথু কুমার টিকটক বন্ধের আবেদন জানিয়ে মাদ্রাস হাইকোর্টে একটি পিটিশন দাখিল করেন। সেই পিটিশনেরই শুনানিতে হাইকোর্টের বিচারপতি এন নিরুবাকরন ও এসএস সুন্দর বুধবার জানান,

যেসব শিশুরা টিকটক অ্যাপ ব্যবহার করে, তাদের কাছে যৌনতা অনেক সহজলভ্য হয়ে পরছে। খুব সহজে যৌন শিকারিদের লালসার শিকার হয়ে যাচ্ছে তারা।

পাশাপাশি, এই অ্যাপ বন্ধের জন্য আমেরিকার ‘দ্য চিলড্রেনস অনলাইন প্রাইভেসি অ্যাক্ট’ -এর ন্যায় কোনও আইন প্রণয়ন করা যায় কিনা সেই নিয়েও কেন্দ্রকে বিবেচনা করতে বলেন তাঁরা। এই জন্য কেন্দ্রকে ১৬ এপ্রিল পর্যন্ত সময়সীমা দিয়েছে মাদ্রাস হাইকোর্ট।

 

অন্যদিকে, টিকটক অ্যাপের এক কর্তা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানান, তাঁরা সর্বদা স্থানীয় আইন মেনেই চলেন। এছাড়া একটি সুরক্ষিত ও পজিটিভ পরিবেশ অ্যাপের মাধ্যমে তুলে ধরতে বদ্ধপরিকর টিকটক। যদিও হাইকোর্টের রায়ের কপি হাতে না পাওয়া পর্যন্ত এই নিয়ে আর বেশি কিছু বলেননি তিনি।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালে ভারতে আত্মপ্রকাশ করে চিনা অ্যাপ টিকটক। ভারতে প্রকাশের পর থেকেই এই নিয়ে বিতর্ক ছড়িয়েছিল। AIADMK দলের বিধায়ক কয়েকদিন আগেই তামিলনাড়ুর বিধানসভায় এই অ্যাপ বন্ধ করার দাবি জানিয়েছিলেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here