ডেস্ক: কেবল অ আ ক খ বা A B C D নয়। এবার থেকে রাজ্যের প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলিতে জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর জীবনীও পড়বে খুদেরা। গান্ধীজির সার্ধশতবর্ষ উপলক্ষ্যে প্রত্যেক রাজ্যে পালিত হওয়া কর্মসূচীর মধ্যে অন্যতম রাজ্য স্কুলশিক্ষা দফতরের এই সিদ্ধান্ত। দেশের প্রতি তাঁর অবদান ও বহু মহান আন্দোলনের পাঠ পাঠ্যপুস্তকের মাধ্যমে দেওয়া হয়ে পড়ুয়াদের।

তবে প্রাথমিক স্তরে সকল শ্রেণির জন্য এই পাঠক্রম বরাদ্দ করা হয়নি। কেবল চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির ইংরেজি ও পরিবেশ বিদ্যার পাঠক্রমে সামিল করা হবে গান্ধীজির জীবনী। উল্লেখ্য, মহাত্মা গান্ধীর সার্ধশতবর্ষ পালনের জন্য কর্মসূচী গ্রহণ করার আবেদন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিল্লিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মমতাও সেই ডাকে সাড়া দিয়ে দিল্লি যান এবং দেশজুড়ে এই সার্ধশতবর্ষ পালনে অংশীদারী নেন স্বেচ্ছায়। এরপর কলকাতা ফিরে নবান্নে মন্ত্রীসভার একটি বৈঠকে প্রাথমিক স্তরে গান্ধীজির জীবনীকে পাঠক্রমে অন্তর্ভুক্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

একই সঙ্গে চলতি বছরের ২ অক্টোবর গান্ধীজির জন্মদিবসে তাঁর সার্ধশতবর্ষ রাজ্যজুড়ে পালন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। নবান্ন সূত্রে খবর, আগামী বছর থেকেই চতুর্থ ও পঞ্চম শ্রেণির পাঠক্রমে স্বাধীনতা আন্দোলনে গান্ধীজির অবদান অন্তর্ভুক্ত করা হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here