abvp activists bengali news

Highlights

  • জেএনইউ হামলায় অভিযুক্ত তিন এবিভিপি কর্মী পলাতক
  • তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করা যাচ্ছে না বলল দিল্লি পুলিশ
  • অন্যতম অভিযুক্ত গ্রেফতারি এড়াতে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের দ্বারস্ত

মহানগর ওয়েবডেস্ক:  ৫ জানুয়ারি জওহর লাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়(জেএনইউ)-এ সশস্ত্র হামলার দায়ে অভিযুক্ত এবিভিপির কোমল শর্মা, অক্ষত অবস্থি ও রোহিত শাহকে জেরার জন্য ডেকেছে দিল্লি পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ৷ তবে পুলিশ জানিয়েছে তারা সবাই পলাতক৷ তাদের সবার মোবাইল বন্ধ আছে৷ এদিকে নিজে নির্দোষ বলে দাবি করে গ্রেফতারি এড়াতে কোমল শর্মা জাতীয় মহিলা কমিশনারের দ্বারস্ত হয়েছে৷ মহিলা কমিশন দিল্লি পুলিশকে চিঠি পাঠিয়েছিল৷ পুলিশ সাফ জানিয়েছে, কোমল এই হামলায় জড়িত৷

চুনচুন কুমার ও দোলন সামন্তকে বুধবার জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়। ফরেন্সিক সায়েন্স ল্যাবোটরির দল বিশ্ববিদ্যালয় চত্ত্বর পরিদর্শন করেন এবং সার্ভার রুম থেকে তথ্য সংগ্রহ করে নিয়ে যায়। অপরাধ দমন শাখার এক আধিকারিক জানিয়েছেন যে জেএনইউ হামলার সঙ্গে জড়িত অক্ষত অবস্থি, রোহিত শাহ ও কোমল শর্মার খোঁজ চলছে, তারা তিনজনেই পলাতক। জেএনইউএসআই সভাপতি ঐশী ঘোষ, সুচেতা তালুকদার, প্রিয়া রঞ্জন, দোলন সামন্ত, ভাস্কর বিজয় মেছ, চুনচুন কুমার এবং পঙ্কজ মিশ্রের নাম রয়েছে জেএনইউ হামলায়। ইতিমধ্যেই পুলিশ বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে এই মামলায়।

জেএনইউয়ের প্রথম বর্ষের ছাত্র অবস্থি ও শাহ। এক সর্বভারতীয় টিভি চ্যানেলের স্টিং অপারেশনে তাদের দেখা যায়। পুলিশ এই হামলায় জড়িত কোমল শর্মাকে সনাক্ত করে, সে দৌলত রাম কলেজের ছাত্রী। জেএনইউ হামলার ভিডিওতে মুখ–ঢাকা তরুণী ছিল কোমল। সে হামলার সময় চেক শার্ট ও হাল্কা নীল রঙের ওড়না দিয়ে মুখ ঢেকে ছিল এবং হাতে লাঠি ছিল। শনিবার রাত থেকে কোমলের ফোন বন্ধ বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ অবস্থি ও শাহের সঙ্গে যোগাযোগ করে, তারা পুলিশকে জানায় যে তদন্তে তারা সহযোগিতা করবে। কিন্তু তাদের ফোনও বন্ধ বলে জানিয়েছে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here