kolkata news

 

নিজস্ব প্রতিনিধি, হুগলি: কৃষি বিল নিয়ে সিঙ্গুর-সহ দেশের কোনও জায়গায় কোনও কৃষকের কোনও প্রতিবাদ নেই।  কৃষকদের মুখে হাসি ফোটাবে নতুন এই কৃষি বিল। বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতির দায়িত্ব পাওয়ার পর প্রথম প্রতিক্রিয়ায় এই কথাই জানালেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। সেই সঙ্গে বিজেপি দলে সর্বভারতীয়স্তরে নতুন দায়িত্ব পাওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেন, আগামী বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে পদ্ম ফোটানোই তাঁর প্রধান লক্ষ।

কেন্দ্রীয় সরকারের নতুন কৃষি বিল নিয়ে রাজ‍্য থেকে দেশ তোলপাড় হচ্ছে। সমস্ত বিরোধী দল-সহ বিজেপি শরিক আকালি দল বিলের বিরোধিতায় পথে নেমেছে। কৃষি বিল কৃষকের স্বার্থের পরিপন্থী দাবি করে রাস্তা অবরোধ, বিক্ষোভ, ধর্না-সহ একাধিক কর্মসূচি নিয়ে ময়দানে নেমে পড়েছে তৃণমূল, বামফ্রন্ট, কংগ্ৰেস-সহ একাধিক রাজনৈতিক দল। বিরোধীদের এত আন্দোলন সত্ত্বেও কৃষি বিল প্রত‍্যাহারে কোনও ইঙ্গিত তো নেই, বরং কৃষক-সহ সাধারণ মানুষকে বোঝাতে এবারে জেলায় জেলায় কর্মসূচি বাড়াচ্ছে বিজেপি।

আজ হুগলিতে মুকুল রায়, শিলিগুড়িতে সায়ন্তন বসু,  বোলপুরে লকেট চট্টোপাধ‍্যায়-সহ হাওড়া, পশ্চিম মেদিনীপুর, কৃষ্ণনগরে সাংবাদিক সম্মেলন করেন বিজেপি নেতারা। কৃষি বিল যে কৃষকের স্বার্থরক্ষার জন‍্যই করা হয়েছে, তা বোঝানোর চেষ্টা করেন মুকুল রায়। হুগলির চুঁচুড়ায় দলীয় কার্যালয়ে এসে সাংবাদিকের মুখোমুখি হন তিনি। বিরোধীদের আন্দোলনকে কটাক্ষ করে মুকুল রায় বলেন,  ‘এই বিল কৃষকের মুখে হাসি ফোটাবে। এতে ফড়েরা ক্ষতিগ্ৰস্ত হবেন। কোনও কৃষক ক্ষতিগ্ৰস্ত হবেন না।‘

অন‍্যদিকে, বিজেপিতে কেন্দ্রীয় সহ সভাপতির পদ পাওয়ার পর তাঁর দায়িত্ব আরও বেড়ে গেল বলে জানিয়েছেন মুকুল রায়। মুকুল রায় বলেন, আমার ওপর গুরুদায়িত্ব আছে। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে রাজ‍্যের সভাপতি দিলীপ ঘোষ-সহ অন‍্যানদের নিয়ে সর্বতো ভাবে লড়াই করে পশ্চিমবঙ্গে ভারতীয় জনতা পার্টিকে ক্ষমতায় আনাই এখন মূল লক্ষ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here