ডেস্ক: এবার নিজের সম্পত্তি বেহাত হওয়ার আশঙ্কায় দেশে ফিরতে চাইছেন বিজয় মালিয়া। একটি বিশ্বস্ত সংবাদমাধ্যম সূত্রের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ভারতে মালিয়ার যা সম্পত্তি রয়েছে তার সবটাই বাজেয়াপ্ত করেছেন গোয়েন্দারা। আদালতের তরফে যদি একবার ওই বাজেয়াপ্ত সম্পত্তির উপর শিলমোহর দেওয়া হয় তাহলে ঋণখেলাপি সংক্রান্ত নয়া নিয়ম অনুযায়ী তা আর কোনও ভাবেই ফেরত পাবেন না কিংফিশার মালিক। ফলে বিদেশে গাঢাকা দিয়ে থাকা মালিয়া এবার নিজের সম্পত্তি খোয়ানোর আশঙ্কায় বেশ চিন্তিত হয়ে পড়েছেন। এই টোপ দিয়েই কেন্দ্র মালিয়াকে দেশে ফেরাতে তৎপর হয়ে উঠেছে কেন্দ্র। মালিয়ার অভিযোগ ভারতীয় জেলে পর্যাপ্ত পরিমাণ আলো বাতাস না থাকার কারণে তিনি দেশে ফিরতে চাইছেন না। এই বিষয়ে সিবিআই ও ইডির তরফে জানানো হয়েছে মালিয়ার জন্য ভারতে বিশেষ জেলের ব্যব্যস্থাও রাখা হবে, যাতে তাঁকে জেলের মধ্যে কোনওরকম শারীরিক সমস্যার সম্মুখীন হতে না হয়।

উল্লেখ্য,শিল্পপতি বিজয় মালিয়া তাঁর ঋণে জর্জরিত কিংফিশার এয়ারলাইন্সকে বাঁচাতে বিভিন্ন ব্যাঙ্ক থেকে প্রায় ৯৯৯০ কোটি টাকার লোন নিয়েছিলেন। যা তিনি মেটাতে না পেরে দেশ থেকে পালিয়ে বিদেশের মাটিতে ঘাঁটি গেড়ে বসেন। ডেবিট রিকভারি ট্রাইবুনালের নয়া নিয়ম অনুযায়ী ১১.৫ শতাংশ সুদ অনুযায়ী মোট ছয় হাজার কোটি টাকা মালিয়াকে দিতে হবে। মালিয়া পলাতক হওয়ার কারণে তাঁর প্রায় সাড়ে ১৩ কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করেছে ইডি। আগামী ১২ সেপ্টেম্বর রয়েছে এই মামলার পরবর্তী শুনানি। এখন দেখার অপেক্ষা কতদিনে মালিয়াকে দেশে ফেরানো যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here