kolkata bengali news

ডেস্ক: উত্তরবঙ্গে ভোট প্রচারে গিয়ে সেখানকার মানুষের কাছে পাঁচ বছরে বিজেপি সরকারের একাধিক অপারগতা তুলে ধরে তৃণমূলের হাত শক্ত করতে বারে বারে আহ্বান জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ বুধবারই চোপডা়য় প্রচার সভা থেকে মোদীকে হুঁশিয়ারি দিয়ে দিদি বলেছিলেন ‘যো হমারে সাথ লড়েগা ও চুর চুর হো জায়েগা৷’ সেইসঙ্গে বিজেপি সরকারের পাঁচ বছরের অক্ষমতার তালিকা একে একে তুলে ধরেছিলেন উত্তর দিনাজপুরের মানুষের কাছে৷ মোদী ঝুটা-লুটেরা বলেও কম কটাক্ষ করেননি বাংলার মুখ্যমন্ত্রী৷ আর এদিন পাহাড়ে গিয়ে একাধিক ইস্যুতে আবারও দিদির টার্গিট প্রধান প্রতিপক্ষ প্রধানমন্ত্রীই৷ দার্জিলিং-এ বিজেপি প্রার্থী করেছে রাজু বিস্তাকে। বিমল গুরুং গোষ্ঠী তাঁকে সমর্থন করেছে। এদিন  রাজু বিস্তাকে কটাক্ষ করে মুখ্যমন্ত্রীর উক্তি , মণিপুর থেকে এক জন এসেছে, ভোটে টাকা উড়িয়ে চলে যাবে৷ এদিন বিজেপি প্রার্থীকে ভোট না দেওয়ার জন্য আরও একবার পাহাড়বাসীর কাছে আবেদন জানান মুখ্যমন্ত্রী৷

পাশাপাশি পাহাড়ের গণ্ডগোলে দিল্লি থেকে মদত দিয়েছে বিজেপি, আক্রমণ শানিয়ে বলেছেন দিদি৷ বৃহস্পতিবারই কালিম্পং-এ সভা করেছেন অমিত শাহ। এদিকে মুখ্যমন্ত্রী এদিন দার্জিলিং-এ সভা করেন৷ দার্জিলিং-এ অমিত শাহের সভা হওয়ার কথা থাকলেও এবারেও প্রশাসনের অনুমতি না মেলায় কালিম্পং-এ সভা হয়েছে৷ সেই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, গত পাঁচ বছরে এক বারও দেখা যায়নি যাঁকে সে আবার কালিম্পং-এ এসে বড় বড় কথা বলছে। ভোট বাক্স ভরাতে বিগত পাঁচ বছরে মোদীর একের পর এক ভুল সিদ্ধান্তের উদাহরণ টেনে দিদি পাহাড়ের মানুষকে এদিন মনে করিয়ে দিয়েছেন চৌকিদারের জন্য কতটা সমস্যার মুখে পড়েতে হয়েছে তাদের মতো আম জনতাকে৷ পাহাড়বাসীর কাছে তিনি আরও জানতে চান, নোটবন্দি আপনাদের মনে আছে, একদিন আচমকা দেখা গেল রাতারাতি সব নোট বাতিল হযে গিয়েছে৷

পাহাড়ের মানুষকে মোদীর বিরুদ্ধে উস্কে দিয়ে দিদি বলেন, বাগডোগরায় নেমে কালিম্পঙে এসে ভাষণ দিয়ে চলে যাবে৷ এদিন দিদি বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতিকে আরও একবার খোঁচা দিয়ে বলেন, গোর্খাল্যান্ডের কথা বলেছিলেন যারা আজ আর তাদের দেখা মিলছে না৷ ২০১৯ সালে দিল্লিতে তৃণমূলের নেতৃত্বেই সরকার হবে বলেও এদিন পাহাড় থেকে জানিয়ে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here