kolkata bengali news
Kolkata: West Bengal CM Mamata Banerjee addressing a press conference at Nabanna in Kolkata on Saturday. PTI Photo(PTI11_12_2016_000180B)

ডেস্ক: বৃহস্পতিবার দার্জিলিং-এ অমর সিং রাইয়ের সমর্থনে প্রচারে গিয়ে সেখানকার মানুষের কাছে পাঁচ বছরে বিজেপি সরকারের একাধিক অপারগতা তুলে ধরে তৃণমূলের হাত শক্ত করতে আহ্বান জানিয়েছিলেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ শুক্রবার কার্সিয়াংয়েও চেনা ঢং-এই আক্রমণ করলেন মোদীকে৷ ১৮ এপ্রিল দার্জিলিং-এ ভোট৷ তার আগে পাহাড়ে গিয়ে প্রচারে ঝড় তুলে পাহাড়বাসীর আবেগকেই এবার হাতিয়ার করলেন দিদি৷ বললেন, দার্জিলিং, কার্সিয়াং, কালিম্পংয়ের উন্নয়নের জন্য আমরা সদা কাজ করতে প্রস্তুত৷ কার্শিয়াংয়ে কার পার্কিং হয়েছে, আপনারা আরও পরিকল্পনা করুন, আমরা সব রকম সাহায্য করব৷ কার্শিয়াংয়ে প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস তৈরি করার কাজ শুরু করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানান দিদি৷ এতে স্থানীয় ছেলে-মেয়েদের সুবিধে হবে, তাদের বাইরে পড়তে যেতে হবে না বরং বাইরে থেকই ছাত্র-ছাত্রীরা এখানে পড়তে আসবে সেই প্রতিশ্রুতিও দেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ পাহাড়বাসীর দাবিদাওয়াকে যে বিজেপি কোনওদিনই গুরুত্ব দেয়নি, আরও একবার কার্সিয়াংয়ের মানুষকে সেকথাও মনে করিয়ে দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এদিন মোদীকে নিশানা করে দিদি বলেন, ৫৪৩ টায় একটা আসনও বিজেপি পাবেনা৷

পাশাপাশি এদিন পাহাড়বাসীকে পাশে নিয়ে একসঙ্গে সরকার গড়ার আহ্বান জানান তিনি৷ বিগত কয়েকদিনে যতবার মোদীকে আক্রমণ শানিয়েছেন দিদি, এনআরসি ইস্যুতেই সব থেকে বেশী সরব হতে দেখা গেছে তাঁকে৷ কারণ অসমে যেভাবে বাঙালি খেদাও করেছে বিজেপি, সেই আবেগে বারে বারে ঘা দিতে পারলে হয়তো বিজেপির বিরুদ্ধে পাহাড়বাসীকে উস্কে দেওয়াটা অনেকটাই সহজ হবে, রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা অন্তত তাই মনে করছেন৷ তাই তো দার্জিলিং-এর পর কার্সিয়াংয়ে গিয়েও নাগরিকপঞ্জী নিয়ে বিরোধীতার সুর চড়াতে ভোলেননি দিদি৷ বলেছেন, অসমে বাঙালিদের তাড়িনোর চক্রান্ত করছে মোদী৷ সিটিজেনশিপ বিল নিয়ে তিনি বলেন, পাঁচ বছরের জন্য প্রথমে বিদেশি বানিয়ে দেবে, তারপর নাগরিত্ব দেবে কি না জানা নেই৷ কালিম্পং থেকে বৃহস্পতিবার অমিত শাহ দিদিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে জানিয়েছিলেন বাংলায় এনআরসি চালু হবেই, ক্ষমতা থাকলে আটকে দেখান৷ এদিন পাহাড় থেকে অমিতকে পল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে ফের একবার দিদির হুংকার বাংলায় নাগরিকপঞ্জী করতে দেব না৷

বুধবারই চোপডা়য় প্রচার সভা থেকে মোদীকে হুঁশিয়ারি দিয়ে দিদি বলেছিলেন ‘যো হমারে সাথ লড়েগা ও চুর চুর হো জায়েগা৷’ এদিন আরও একবার চৌকিদারকে চুরি করার জন্য কাঠগড়ায় তুললেন তিনি৷ বললেন মোদী, অমিত শাহরা সব ভোটের আগে আসবেন, তারপর ভোট ফুরোলেই আর তাঁদের দেখা পাওয়া যাবে না৷ এদিন সেনার নামে ভোট চাওয়ায় মোদী সরকারের নিন্দায় ফের একবার সরব হন মুখ্যমন্ত্রী৷ ভোট বাক্স ভরাতে বিগত পাঁচ বছরে মোদীর একের পর এক ভুল সিদ্ধান্তের উদাহরণ টেনে দিদি পাহাড়ের মানুষকে এদিন মনে করিয়ে দিয়েছেন চৌকিদারের জন্য কতটা সমস্যার মুখে পড়েতে হয়েছে তাদের মতো আম জনতাকে৷ প্রতিশ্রুতি মত সাধারণের ১৫ লক্ষ টাকা দিতে পারেননি মোদী৷ প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করেছেন৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here