ডেস্ক: রাজনৈতিক কারণে নয়, মূলত ব্যক্তিগত জীবনের কুটকাচালির কারণেই ইদানিংকালে বেশিরভাগ সময়ে শিরোনামে থেকেছেন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বিবাহবিচ্ছেদ মামলা ও বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের পারিবারিক ঘনিষ্ঠতা, এই দুই নিয়ে নাজেহাল মেয়র। এরমধ্যে তাঁর সঙ্গে বৈশাখীর ঘনিষ্ঠতা নিয়ে কম লেখালেখি হয়নি সংবাদ মাধ্যমে। কিন্তু পুরোটাই যেন ছাই চাপা আগুনের মতো ছিল। বিতর্কের আগুন জ্বলে উঠল খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথায়। এবার মেয়রের বিরুদ্ধে সরাসরি কাজ না করে শুধু প্রেম করার মারাত্মক অভিযোগ তুললেন তৃণমূল সুপ্রিমো।

শুক্রবার বিধানসভা ভবনে মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে সবে দেখা হয়েছিল মমতার। কিন্তু দেখা হতেই মুখ্যমন্ত্রী যে এমন একখানা প্রশ্নবাণ ছুঁড়বেন তা হয়তো কল্পনায়ও ভাবেন নি শোভন। ‘শুধুই প্রেম করছিস, নাকি কাজও করছিস?’ মুখ্যমন্ত্রীর মুখে এহেন প্রশ্ন শুনে খানিকটা অপ্রস্তুত মেয়র, খানিকক্ষণ আমতা আমতা করে সলজ্জ ভঙ্গিতে উত্তর দিলেন, ‘আমি ওসব করি নাকি?’ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী তো ছাড়ার পাত্রী নন। শোভনের ফোনে ‘মা’ লিখে সেভ করা মমতার নম্বর। রীতিমতো মাতৃসুলভ ভঙ্গিতে পাল্টা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে মেয়রকে বলেন, ‘ঠিক আছে, তাহলে সবার সামনেই ভোট হোক। দেখি কতজন তোর পক্ষে।’ দলনেত্রীর এহেন পাল্টা জবাব শুনে হাসির রোল ওঠে উপস্থিত নেতা-মন্ত্রীদের মধ্যে।

শোভন কার সঙ্গে প্রেম করছেন সে বিষয়ে মমতা সরাসরি কোনও কথা না বললেও, মেয়রের কাজে যে তিনি নাখুশ তা একথার মাধ্যমেই সাফ করে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। একই সঙ্গে এই প্রশ্নও উঠে গিয়েছে, তবে কার সঙ্গে প্রেম করছেন মেয়র। পুরো কথোপকথনই আড্ডার মেজাজে হলেও সাম্প্রতিক কালে বৈশাখীর সঙ্গে মেয়রের ঘনিষ্ঠতার যেভাবে সংবাদ মাধ্যমে জায়গা করে নিয়েছে তা মোটেও ভাল চোখে দেখছে না দলের হাই কমান্ড। একই সঙ্গে মেয়রের কাজেও যে গাফিলতি হচ্ছে সেকথাও প্রকাশ পেয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর কথায়।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here