ডেস্ক: রানির রাজ্যে হঠাৎ করেই ঢুকে পড়েছেন অবাঞ্ছিত এক রাজা। তারওপর শুধু কি ঢুকে পড়া, রাজার মেজাজেই ঘুরে বেড়াচ্চেন তিনি এখান হতে সেখানে। কখনও লালগড়ে তো কখনও সারেঙ্গায়, কখনও মেদিনীপুরে তো কখনও ঝিটিকার জঙ্গলে। তার খোঁজ পেতে নাওয়া খাওয়া ভুলেছেন বনদপ্তরের আধিকারিকরাও। যেখানে যেখানে রাজাবাবুর পায়ের ছাপ পাওয়া যাচ্ছে সেখানে সেখানে খাঁচা নিয়ে ছুট লাগাচ্ছেন তারা। বেশ যত্নের সঙ্গে টোপ দিয়ে খাঁচা পেতেও আসছেন তারা।

কিন্তু যার জন্য এত কিছুর আয়োজন তারই তো টিকির দেখা মিলছে না। উল্টে তার অবাধ বিচরণের জন্য আতঙ্কে ছড়াছে গোটা জঙ্গলমহল জুড়ে। সেই আতঙ্কের রেশটা বাঁকুড়ায় প্রশাসনিক সভা করতে এসে টের পেলেন খোদ রানীমা থুড়ি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মহারাজ আবার এক পথভোলা এক পথিক, যিনি নিজের চিরাচরিত এলাকা ছেড়ে ঢুকে পড়েছেন এই রাজ্যে। যে সে মহারাজ অবশ্য তিনি নন। তিনি বনের রাজা বাঘ। না জানি কোথা থেকে এসে হাজির হয়েছেন তিনি। বুধবার বাঘ ধরতে ততপর বনদপ্তরের আধিকারিকদের মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিলেন বাঘ খঁজতে ড্রোন ব্যবহার করা হোক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here