kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বঙ্গে বিজেপির অবিশ্বাস্য উত্থান, অন্যদিকে একের পর এক পুরসভা নিয়ে দোলাচল। সবমিলিয়ে মমতার অস্বস্তি কমার নয়। এই পরিস্থিতিতে নিজেদের ‘দোষ’ খুঁজে বের করতে দলীয় কাউন্সিলরদের সঙ্গে আলোচনায় তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নজরুল মঞ্চে প্রায় ৩০০০ কাউন্সিলরকে ‘ধমকে’ দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

‘দলের কাজ ঠিকমতো হচ্ছে না, কাউন্সিলররা এলাকায় ভাল কাজ না করলে দলের নাম খারাপ হয়, দোষ হয় দলেরই। অনেক এলাকায় এলাকা সাজাতে যত্ন নেওয়া হয় না। শুধু প্রমোটিং-এর দিকে নজর দিলে হবে না, কাজ করতেই হবে’।

এমনভাবেই কড়া ভাষাতে দলীয় কাউন্সিলরদের কড়কে দিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। পাশাপাশি, যারা দলবদল করেছেন, অর্থাৎ মুকুল রায়, অর্জুন সিংকে নাম না করে তোপ দাগেন তিনি। মন্তব্য করেন,

‘কিছু লোক চুরি করে ধরা পড়লেই অন্য দলে চলে যাচ্ছে। অনেক পুরসভায় অনেকে সরকারি সম্পত্তি নিজের নামে করে নিয়েছে।’

এই প্রেক্ষিতেই তিনি হুঁশিয়ারির সুরে বলেন,

‘অন্য দলে গিয়ে কিন্তু কেউ বাঁচবে না।’

পাশাপাশি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মন্তব্য করেন, ‘দলটা রামধনু হয়ে যায়নি, আজ তৃণমূল, কাজ সিপিএম, পরে বিজেপি, এসব চলবে না।’

৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে ২০টি লোকসভাই তৃণমূলের হাতছাড়া হয়েছে। কংগ্রেস সামান্য নজর কাড়লেও বাকি পুরোটাই হাতড়ে নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। যে লোকসভাগুলি মমতা ধরে রাখতে পারেননি তার অন্তর্গত প্রায় সবকটা পুরসভাও ধাক্কা দিয়েছে তৃণমূলকে। এহেন অবস্থায় দলের ঠিক কোনদিকে যাওয়া উচিত তার দিক নির্দেশ দিতে উঠে পড়ে লেগেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এই বৈঠক যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here