kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: বছর তিনেক আগে রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক মুহূর্তে বঙ্গ রাজনীতিতে ঝড় তুলে দিয়েছিল সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েলের করা একটি স্টিং অপারেশন। সেই ভিডিওতে রাজ্যের শাসক দলের একাধিক নেতা-মন্ত্রী-সাংসদকে প্রকাশ্যে ঘুষ নিতে দেখা যায়। যদিও মহানগর সেই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি। তবে নির্বাচনের ঠিক আগে এমন বিস্ফোরক ভিডিওতে প্রশ্নের মুখে পড়ে যায় তৃণমূল নেতৃত্বের সততা। এই স্টিং অপারেশন নিয়ে রাজনৈতিক মহলে ওঠে একাধিক প্রশ্ন। সেই সমস্ত প্রশ্নের উত্তর প্রথমবার ক্যামেরার সামনে খোলসা করলেন খোদ নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েল। মহানগরের প্রতিনিধি রাজেশ সাহাকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাত্কারে জানালেন এই স্টিং অপারেশনের নেপথ্যের বহু বিস্ফোরক তথ্য। সেখানেই রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্কে নিজের চিন্তাধারা তুলে ধরলেন ম্যাথু। তাঁর কথায়, বাংলায় মমতা হলেন রাক্ষস রানি। দুর্নীতির বটবৃক্ষ। বাংলাকে তিলে তিলে শেষ করে দিচ্ছেন তিনি।

মহানগরকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মমতা সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরে কেউ নেই। গোটা দেশের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ এমন একটি রাজ্য যেখানে কোনও গণতন্ত্র নেই। পয়সা নিয়ে চলে গুন্ডাগিরি। আর ঠিক এই কারণেই এরা ভোটের লড়াইয়ে যেতে চায় না। বুথ দখল করে চলে ভোট।’ এরপরই ম্যাথুর দাবি, ‘মমতা হলেন রাক্ষস রানি। বাংলায় তৃণমূল ও দিদির বিরুদ্ধে কেউ কিছু বলতে পারে না। খুন করে দেবে। আপনি দেখবেন পশ্চিমবঙ্গে এখন কোনও চাকরি নেই। অর্থনীতি, শিল্প, সবকিছুতে বাংলা সেরার জায়গায় যাওয়ার ক্ষমতা রাখে। কিন্তু ১০ বছর দিদির সাম্রাজ্যে সব শেষ।’

তবে শুধু এইটুকুতে খান্ত থাকেননি ম্যাথু। মমতা সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, ‘শুরুতে দিদি আমার অনুপ্রেরণা ছিলেন। মধ্যবৃত্ত পরিবার থেকে উঠে এসে একেবারে রাস্তায় দাঁড়িয়ে লড়াই করেছেন উনি। প্রচুর রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মধ্য দিয়ে দীর্ঘ বাম শাসনের অবসান ঘটিয়েছেন। কিন্তু পরে যখন ওনাকে জানলাম, বুঝলাম মা মাটি মানুষ, সততার প্রতীক সব মিথ্যা। গোটা বাংলাকে বোকা বানাচ্ছেন উনি। ওনার কথা কাজ পুরোপুরি আলাদা।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here