ডেস্ক: নোটবন্দি হোক বা জিএসটি। জাতীয় রাজনীতিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরোধীতার প্রধান মুখ হলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃতীয় ফ্রন্টই হোক বা বিজেপি বিরোধিতা, একডাকে মমতাকেই চেনেন জাতীয় স্তরের সকল বিজেপি নেতারা। সেই মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবার দিল্লি উড়ে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে। দুই নেতার এই বৈঠক জাতীয় রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে কোনও বদল না আনলেও রাজ্যের একাদিক দাবি দাওয়া তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে উপস্থাপন করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে।

জানা গিয়েছে, আজ সন্ধ্যেবেলাই দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছেন মমতা। আগামীকাল অর্থাৎ বুধবার মোদীর সঙ্গে বৈঠকে বসবেন মমতা। ঘটনা হল, জাতির জনক মহাত্মা গান্ধির জন্মসার্ধশতবর্ষ উপলক্ষ্যে দেশজুড়ে সারাবছর নানা অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। সেই অনুষ্ঠানগুলি সম্পর্কে আলোচনা করাই হবে এই বৈঠকের উদ্দেশ্য। এই অনুষ্ঠানগুলি পালনের জন্য সকল রাজ্যের প্রতিনিধিদের নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। সেখানে মুখ্যমন্ত্রী ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিরা রয়েছেন।

অন্যদিকে, এই বৈঠক নেহাত সৌজন্য সাক্ষাৎ আখ্যা পেলেও এর থেকে একাধিক সম্ভাবনার সৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। প্রধানমন্ত্রীর কাছে রাজ্যের জন্য মুখ্যমন্ত্রীর যে একাধিক দাবি রয়েছে সেগুলিও নতুন করে উঠে আসতে পারে এই বৈঠকে। ফলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সফর বিশেষ তাৎপর্য পেতে চলেছে রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি থেকে। অন্যদিকে, মমতার এই দিল্লি সফরে বিরোধী নেতাদের সঙ্গেও তাঁর কথোপকথনের সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবার বৈঠক সেরে বৃহস্পতিবার কলকাতা ফিরে আসবেন মুখ্যমন্ত্রী।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here