FotoJet-121

ডেস্ক: লোকসভা ভোটের মুখে রাজ্যজুড়ে অব্যাহত মমতার প্রচার ঝড়। দিনে দুটো, কখনও বা তিনটে করে সভা করে বিজেপির বিরুদ্ধে আক্রমণ শানাচ্ছেন তিনি। এদিন নদিয়ার গয়েশপুরে নির্বাচনি সভা করেন তৃণমূল নেত্রী। স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে স্টেপ আউট করে খেলে বিজেপিকে তুলোধোনা করেন মমতা। এদিনের বক্তব্য শুরু হওয়ার আগেই শ্রীলঙ্কায় বিস্ফোরণে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানান তৃণমূল নেত্রী।

বক্তব্যের শুরু থেকেই নাম না করে তৃণমূল ত্যাগী নেতাদের ‘গদ্দার’ বলে খোঁচা দেওয়া শুরু করেন তিনি। বলেন, তৃণমূলের যত গদ্দার আছে, তাদের নিয়ে ভোটে জিততে চাইছে বিজেপি। ক্ষোভ উগরে মমতার উক্তি, ‘তৃণমূলের এক গদ্দার সব টাকা নিয়ে চলে গেছে, সে বলছে এখানে ভোটে জিতবে। ক্ষমতা থাকলে একটা আসন জিতে দেখান বাংলা থেকে। ভাটপাড়ায় একটা গদ্দার তৈরি হয়েছিল, তাড়িয়ে দিয়েছি। সব গদ্দাররা চলে যাও। দরজা খোলা আছে। আমার কিচ্ছু যায় আসে না।’ উল্লেখ্য, গতকালই প্রকাশ পায় যে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপির দিকে পা বাড়িয়ে রেখেছেন শুভ্রাংশু। মনে করা হচ্ছে, মুকুল-পুত্রকে উদ্দেশ্য করেই এই কটাক্ষ করেছেন মমতা।

একনজরে দেখে নিন এদিনের সভাও আরও যা যা বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়…

  • মোদীবাবু নোটবাতিল করেছিলে, বাংলা তোমার ভোট বাতিল করবে।
  • তোদের চেয়ার টলমল করছে। বাংলার কালচারই জানে না মোদীবাবু।
  • বাংলার মানুষকে কৈফিয়ত দেব, কোনও হরিদাস পালকে দেব না।
  • ওরা বসন্তের কোকিলের মতো, ভোটের সময় আসে, আর দেখা যায় না।
  • আমার গোত্র ‘মা-মাটি-মানুষ’।
  • প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য স্মার্ট কার্ড পাবেন মহিলারা।
  • বাড়ির মহিলারাই ঘর সামলান, তাঁদের নামেই আমরা কার্ড করিয়ে দিচ্ছি।
  • আমি সাংসদ হিসেবে পেনশন পাই, কিন্তু আমি টাকা নিই না
  • মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে এক লাখ টাকা মাইনে নিতে পারতাম, কিন্তু আমি নিই না।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here