মহানগর ওয়েবডেস্ক: অসমে এনআরসিতে বাদ পড়েছে প্রায় ১৯ লক্ষ মানুষের নাম। প্রতিবেশী রাজ্য হিসাবে কেন্দ্রীয় সরকারের আগামী লক্ষ্যে রয়েছে বাংলাও। ইতিমধ্যেই বিজেপির রাজ্যসভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গে এনআরসি হলে অন্তত ২ কোটি মানুষের নাম বাদ যাবে। সেই প্রেক্ষিতেই এবার শ্যামবাজার মোড়ে এনআরসি বিরোধী মিছিলে কড়া হুঁশিয়ারি দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কেন্দ্রকে কার্যত চোখ রাঙিয়ে তিনি জানিয়ে দিলেন, ‘দু’কোটি তো দূরের কথা আগে, আগে বাংলার দু’জন মানুষের গায়ে হাত দিয়ে দেখাক।’

বৃহস্পতিবার এনআরসির প্রতিবাদে শহরের সিঁথির মোড় থেকে শ্যামবাজার পর্যন্ত অরাজনৈতিক মিছিলে হাঁটেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরপর শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়ে সভায় দাঁড়িয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে একের পর এক আক্রমণ শানাতে থাকেন তিনি। বলেন, ‘বাংলাকে যারা হিংসা করেন, তাঁরা জেনে রাখুন বাংলা কখনই মাথা নত করবে না। বাংলার সংস্কৃতি মানে দেশের সংস্কৃতি। আগুন নিয়ে খেলে আরেকটা বঙ্গভঙ্গের চেষ্টা করবেন না। আরেকবার দেশভাগের চেষ্টা করবেন না।’ সম্প্রতি বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ মন্তব্য করেছিলেন, বাংলায় এনআরসি হলে ২ কোটি মানুষের নাম বাদ পড়বে। সেই রাশ টেনেই এদিন মমতা বলেন, ‘দু’কোটি তো দূরের কথা আগে, আগে বাংলার দু’জন মানুষের গায়ে হাত দিয়ে দেখাক।’ পাশাপাশি, বিজেপিকে আক্রমণ করে তিনি বলেন, ‘অসমে এনআরসি করে ১৯ লাখ মানুষকে বাদ দেওয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ১২ লাখ মানুষ হিন্দু। বাংলায় একটা লোকের গায়ে হাত দিয়ে দেখো। বাংলার মানুষের মুখ বন্ধ করা এত সহজ নয়। আমাকে ধর্ম শেখাচ্ছ? অনেক গুন্ডা দেখেছি। অনেক ডান্ডা দেখেছি।’

এরপরই বিজেপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ তুলে মমতা বলেন, ‘শিশু কাচের গ্লাস ভাঙলে তাকে বকাঝকা করা যায়। কিন্তু, বুড়োখোকা দেশ ভাঙলে তাকে আন্দোলনের মাধ্যমে জবাব দিতে হবে। পুলিশ দিয়ে অসমকে চুপ করালেও বাংলা কিন্তু থেমে থাকবে না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here