‘রোগী মরল বিকেলে, হামলা হল রাতে!’ এনআরএস ইস্যুতে তৃণমূলেরই হাত খুঁজছেন দিলীপ

0
596
kolkata bengali news

মহানগর ওয়েবডেস্ক: সোমবার রাতে এনআরএস হাসপাতালে রোগী মৃত্যুকে ঘিরে যে গণ্ডগোল বাঁধে তার ফলস্বরূপ রাজ্যে চূড়ান্ত হয়রানির পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে। ডাক্তারদের আক্রমণ, গুরুতর আহত হওয়া জুনিয়র ডাক্তারের পাশে দাঁড়িয়ে প্রতিবাদ করেছে মানুষ। প্রতিবাদস্বরূপ, বিভিন্ন হাসপাতালের চিকিৎসা পরিষেবাই বয়কট করেছে ডাক্তাররা। যাতে অথৈজলে পড়েছে সাধারণ মানুষ। এই নিয়েই এবার মুখ খুললেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আজ লালবাজার অভিযানের পর সাংবাদিক বৈঠক করে এই ইস্যুতে কার্যত শাসলদল তৃণমূলের ওপরই ক্ষোভ উগরে দিলেন দিলীপ ঘোষ।

‘ডাক্তারবাবুরা নিজেদের অসুরক্ষিত মনে করছেন এই রাজ্যে। সরকারি এবং বেসরকারি হাসপাতালগুলির আউটডোর বন্ধ রয়েছে। এই বিষয়ে রেকর্ড করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রোজ লক্ষ লক্ষ রোগী আসেন, তাদের হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। একাধিক হাসপাতালে আক্রমণের ঘটনা ঘটেছে।’ এমনই মন্তব্য করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি আরও বলেন,

‘রোগী মারা গেছে বিকেল ৫টায়, আক্রমণ করা হল রাতে এ কীভাবে হল! ডাক্তারদের জীবন এখন বিপন্ন।’ দিলীপ অভিযোগ করেন, তাঁরা হাসপাতালে ঢুকতে গেলে পুলিশ বাইরে গেটে আটকে দেয়, কিন্তু রাতে ২ লরি সমাজবিরোধীরা হাসপাতাল ঢুকে গিয়ে ডাক্তার পেটালো, পুলিশ কিছু করতে পারল না।

দিলীপের বক্তব্য,

‘হাসপাতাল মারপিঠ করার জায়গা নয়। থানা-পুলিশ তারা কী করেন? যারা একটি বিশেষ সম্প্রদায়ের, যারা দুধ দেন এবং যাদের লাথ খান মমতা ব্যানার্জি, তাদের গায়ে হাত দিতে পারছেন না।’

পরোক্ষভাবে মুসলিম সম্প্রদায়কে আক্রমণ করে দিলীপ ঘোষ বলেন,

‘একটি বিশেষ সম্প্রদায় এরাই সন্দেশখালিতে খুন করেছে, এই সম্প্রদায়ের লোকেরাই গতবছর ক্যালকাটা হসপিটালে ভাঙচুর চালিয়েছিল। এই বিশেষ সমাজ, সম্প্রদায়ই আইনের বাইরের বাইরে গিয়ে বারবার এই ধরনের কাজ করছে, শুধুমাত্র মমতা ব্যানার্জিকে ভোট দেয় এই অধিকারে পশ্চিমবঙ্গের আইন-শৃঙ্খলাকে বিপন্ন করছে। এটা খুব দুর্ভাগ্যজনক।’

তিনি আরও অভিযোগ করেন, এই বিশেষ সম্প্রদায়কে দিয়ে এই কাজ করানো হচ্ছে, বিজেপির ওপর আক্রমণ করানো হচ্ছে, কারণ তারা জানে পুলিশ তাদের গায়ে হাত দেবে না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here